রাজনৈতিক পরিস্থিতির উন্নতি দেখতে চায় বিশ্বব্যাংক

0
168

World Bank
ঢাকা: বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নতি দেখে সন্তুষ্ট বিশ্বব্যাংক। একইসঙ্গে সংস্থাটি মনে করছে যদি রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা থাকে তাহলে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। এজন্য চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির উন্নতি ঘটাতে হবে বলে মনে করছে ঢাকায় সফররত বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশীয় অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট অ্যানেট ডিক্সন। মঙ্গলবার দুপুরে বাংলাদেশ ব্যাংকে গভর্নর ড. আতিউর রহমানের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের কাছে এ মন্তব্য করেন তিনি।দুপুরে অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে বিশ্বব্যাংকের ছয় সদস্যর একটি প্রতিনিধি দল অংশগ্রহণ করে। বৈঠকটি প্রায় দেড় ঘণ্টাব্যাপী চলে বলে জানা গেছে।
এসময় বিশ্বব্যাংকের এ প্রতিনিধি বাংলাদেশ ব্যাংকের অর্থনীতির অন্তর্ভুক্তিমূলক কার্যক্রমের প্রশংসা করে বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের এ অভিজ্ঞতাকে বিশ্বের কয়েকটি দেশ কাজে লাগাতে চায়।
ব্যাংকের নারী উদ্যোক্তাদের জন্য গৃহীত কার্যক্রম ও এসএমই কার্যক্রম, ক্ষুদ্র ঋণখাত এবং পরিবেশবান্ধব অর্থনীতিতে বাংলাদেশের অগ্রগতি দেখে বিশ্বব্যাংক সন্তুষ্টি প্রকাশ করে বলে বৈঠক সূত্রে জানা গেছে।
বাংলাদেশ ব্যাংকের কার্যক্রম আরো আধুনিকায়ন করতে বিশ্বব্যাংক সহযোগিতা করবে বলে উল্লেখ করা হয়।
সাংবাদিকদের ডিক্সন বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পৌঁছাতে হলে চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির উন্নতি ঘটাতে হবে। একইসঙ্গে বেসরকারি খাতে দীর্ঘ মেয়াদি সুবিধাও দিতে হবে।
সম্প্রতি বাংলাদেশ সফর করে গেছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের মানবাধিকার বিষয়ক প্রতিনিধি দল। এসময়ও তারা বলেছেন, ২০২১ সালে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হওয়ার জন্য বাংলাদেশের সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে। সেখানে পৌঁছাতে হলে বাকস্বাধীনতা, রাজনৈতিক ও নাগরিক অধিকার এবং গণতন্ত্রের প্রতি আবশ্যই শ্রদ্ধাবোধ থাকতে হবে বাংলাদেশের।
এজন্য আমাদের একটি শক্তিশালী বাংলাদেশ দরকার বলেও সফর শেষে এক ব্রিফিংয়ে তারা একথা বলেন।
বৈঠকে বিশ্বব্যাংকের বাংলাদেশ কান্ট্রি ডিরেক্টর জোহানেস জাট ও বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর মো. আবুল কাসেম, আবু হেনা মোহা. রাজী হাসান, এসকে সুর চৌধুরী ও নাজনীন সুলতানা, চেঞ্জ ম্যানেজমেন্ট অ্যাডভাইজার এ মালিক কাজেমী, নির্বাহী পরিচালক আহসান উল্লাহ, চিফ ইকোনমিস্ট ড. বিরুপাক্ষ পাল ও সিবিএসপি সেলের মহাব্যবস্থাপক জোয়ারদার ইসরাইল হোসেনসহ বাংলাদেশ ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।
দায়িত্ব নেয়ার পরে প্রথমবারের মতো ছয় দিনের সফরে ২১ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় আসেন ডিক্সন। ডিক্সন ২০১৪ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি ভাইস-প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব গ্রহণ করেন বলে বিশ্বব্যাংকের ঢাকা অফিস জানিয়েছে।
তিনি ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ঢাকায় অবস্থান করবেন। এ সময় তিনি অর্থমন্ত্রীসহ সরকারি কর্মকর্তা, প্রাইভেট খাত ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করবেন।
বৈঠকে সুশাসন ও বাংলাদেশের অর্থনীতিতে অংশগ্রহণমূলক কার্যক্রমের উন্নয়নে বিশ্বব্যাংকের সর্বোচ্চ সহযোগিতা করার বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে বলে আন্তর্জাতিক এ সংস্থার ঢাকা অফিস জানিয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email