রিভিউ আবেদন খারিজ: সালাউদ্দিন কাদের ও মুজাহিদের মৃত্যুদণ্ড বহাল

0
117

ঢাকা: রিভিউর রায়ে বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখেছে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার পর প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগের বেঞ্চ তাদের রিভিউ আবেদন খারিজ করে মৃত্যুদণ্ড বহালের রায় দেন। বেঞ্চের বাকি সদস্যরা হলেন- বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ  হোসেন ও বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী এবং আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের সামনে এখন শুধু প্রেসিডেন্টের কাছে ক্ষমা চাওয়ার সুযোগ থাকবে। তারা ক্ষমা না চাইলে যে কোন সময় সরকার এ রায় কার্যকর করতে পারবে। আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের রিভিউ আবেদনের শুনানি হয় মঙ্গলবার। অন্যদিকে, সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর রিভিউ আবেদনের শুনানি হয় আজ।

উল্লেখ্য, একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে ২০১৩ সালের ১৭ই জুলাই মুজাহিদকে ফাঁসির রায় দেন বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে গঠিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। একই বছরের ১১ই আগষ্ট ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন মুজাহিদ। তবে সর্বোচ্চ সাজার প্রেক্ষিতে রাষ্ট্রপক্ষ আপিল করেনি। চলতি বছরের ২৯শে এপ্রিল থেকে ২৭শে মে ৯ কার্যদিবসে আপিল শুনানি শেষ হয়। গত ১৬ই জুন মুজাহিদের আপিল খারিজ করে বুদ্ধিজীবী হত্যার দায়ে ট্রাইব্যুনালের দেওয়া মৃত্যুদণ্ডের রায় বহাল রাখেন আপিল বিভাগ। ৩০শে সেপ্টেম্বর মুজাহিদের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করে আপিল বিভাগ।

এদিকে একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে ২০১৩ সালের ১লা অক্টোবর বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন বিচারপতি এটিএম ফজলে কবিরের নেতৃত্বে গঠিত ৩ সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১। রায়ের বিরুদ্ধে ওই বছরের ২৯শে অক্টোবর আপিল করেন তিনি। চলতি বছরের ১৬ই জুন শুরু হয়ে ৭ই জুলাই পর্যন্ত ১৩ কার্যদিবসে আপিল শুনানি শেষ হয়। ২৯শে জুলাই সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ফাঁসির চূড়ান্ত রায় দেন বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে গঠিত আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চ। পরে ৩০শে সেপ্টেম্বর সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ পায়। এরপর নির্ধারিত ১৫ দিনের মধ্যেই রিভিউ আবেদন করেন সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী।

Print Friendly, PDF & Email