রিয়াজের হামলাকারীরা সরকারের গুপ্ত কমিটির সদস্য: রিজভী

0
229

Rijbi
নিজস্ব প্রতিবেদক: বর্তমান ‘অবৈধ’ সরকারের গঠিত গুপ্তবাহিনীর কমিটির সদস্যরাই রিয়াজ রহমানের ওপর হামলা করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী। তিনি ২০দলীয় জোটের নেতাকর্মীদের ওপর সরকারের ‘নির্যাতনের’ বর্তমান চিত্রকে শেষ অন্ধকার বলে অভিহিত করেন। বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ অভিযোগ করেন।
রিজভী বলেন, ‘এই ভোটারবিহীন সরকার বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের হত্যা করার জন্য গুপ্তঘাতকদের নামিয়ে দিয়েছে বিভিন্ন পাড়ায় মহল্লায়। জনগণের তুমুল আন্দোলনের চাপে শেষ বিষাক্ত ছোবল দেয়ার জন্যই মরণঘাতি গুপ্তবাহিনী দিয়ে কমিটি গঠন করেছে তারা। এরই নির্মম শিকার হয়েছেন দেশের পেশাদার কূটনীতিক, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী রিয়াজ রহমান।’
তিনি বলেন, ‘বর্তমান অবৈধ সরকার দ্বিতীয় পর্যায়ের বাকশালী দুঃশাসনের চরম সীমায় উপনীত হয়েছে। সকল বিরোধী মত এবং দলকে নিশ্চিহ্ন করে শতকরা পাঁচ ভাগ ভোট পেয়ে অবৈধ একদলীয় শাসনকে টিকিয়ে রাখার জন্য তারা দেশব্যাপী এখন রক্তগঙ্গা বইয়ে দেয়ার কর্মসূচিতে লিপ্ত হয়েছে। তবে একদলীয় বাকশালী দুঃশাসনের এটি শেষ অন্ধকার। এই অন্ধকার দূরীভুত করার জন্য মৃত্যুকে জয় করার ব্রত নিয়ে ২০ দলীয় জোটসহ আপামর জনসাধারণ এখন দুর্বার আন্দোলনে অংশগ্রহণ করছে।’
রিজভী আরো বলেন, ‘শতকরা পাঁচ ভাগ জনসমর্থনের এই অবৈধ সরকারকে রক্ষার জন্য যারা জনগণের আন্দোলনের ওপর দমন পীড়ন চালাচ্ছেন তারা কেউই রেহাই পাবেন না। দেশের জনগণ তাদের বিচার নিশ্চিত করবেই। বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অবরুদ্ধ করে তার প্রতি অমানবিক আচরণসহ অশ্লীল কথাবার্তা যারা বলছেন তারাও এদেশের মানুষের ক্রোধ থেকে কখনোই রেহাই পাবেন না।’
রিজভী বলেন, ‘গতরাতে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য রিয়াজ রহমানের ওপর হামলা এবং তাকে গুলি করে গুরুতর আহত করার প্রতিবাদে ২০ দলীয় জোটের ডাকে আগামীকাল ১৫ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেশব্যাপী ১২ ঘণ্টার সর্বাত্মক হরতাল আহ্বান করা হয়েছে।’
দেশের মানুষের জানমালের নিরাপত্তা বিধানের জন্য ২০ দলীয় জোটের ডাকা আগামীকালের হরতাল এবং চলমান অবরোধ কর্মসূচি স্বতঃস্ফুর্তভাবে পালনের জন্য দেশের সর্বস্তরের জনসাধারণের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন রিজভী। তিনি বলেন, ‘বিজয় অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত দেশব্যাপী অবরোধ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।’

Print Friendly, PDF & Email