শিবির নেতা জসিমকে পুলিশ নিষ্ঠুরভাবে গুলি করে হত্যা করেছে: জামায়াত

0
286

ঢাকা: ঝিনাইদহ জেলার গান্না সাংগঠনিক থানা শিবিরের সভাপতি মো. জসীম উদ্দিনকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী আটকের তাকে নিষ্ঠুরভাবে গুলি করে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ করেছে জামায়াতে ইসলামী। শুক্রবার দুপুরে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান এ অভিযোগ করেন।
বিবৃতিতে ডা. শফিক বলেন, ঝিনাইদহ জেলার গান্না সাংগঠনিক থানা ছাত্রশিবিরের সভাপতি মোঃ জসীম উদ্দিনকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী আটক করে গত ৩ মার্চ দিবাগত রাতে নিষ্ঠুরভাবে গুলি করে হত্যা করে। জসীমউদ্দিন একজন সৎ, মেধাবী ও সম্ভাবনাময় ছাত্র নেতা ছিল। তাকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী গুলি করে হত্যা করে তার পিতা-মাতা এবং পরিবার-পরিজনদের স্বপ্ন ধূলিস্যাৎ করে দিয়েছে। আজ তারা জসীম উদ্দীনকে হারিয়ে সকলেই বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। তাদের শান্ত¡না জানানোর কোন ভাষা নেই। আমরাও মোঃ জসীম উদ্দিনের নির্মম হত্যাকান্ডে গভীরভাবে শোকাহত।
তিনি বলেন, সরকার জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীদের বেঁেছ বেঁছে আটক করছে এবং বিনা বিচারে গুলি করে হত্যা করছে। গত ২৩ জানুয়ারি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কুঠিদুর্গাপুর দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক ও জামায়াত কর্মী আবু হুরাইরা মালিথাকে প্রকাশ্য দিবালোকে মাদ্রাসা থেকে গ্রেফতার করে নিয়ে যাওয়ার ১ মাস ৬ দিন পর ২৯ ফেব্রুয়ারি তার লাশ পাওয়া যায়। গত ২ মার্চ ঝিনাইদহ জেলা জামায়াতের নায়েবে আমির নূর মোহাম্মদকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী আটক করে নিয়ে যাওয়ার পরে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাকে আটক করার কথা অস্বীকার করছে। তিনি এখন কোথায় কি অবস্থায় আছেন তা আমরা জানিনা। গত ৩ মার্চ ডিবি পুলিশ জয়পুরহাট সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও জয়পুরহাট শহর জামায়াতের আমির হাসিবুল আলম লিটনকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করেছে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর এ ধরনের মানবতা বিরোধী নৃশংসতার আমি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।
জামায়াত সেক্রেটারি বলেন, বর্তমান সরকার ঝিনাইদহ জেলাকে এক মৃত্যু উপত্যকায় পরিণত করেছে। এ জেলার সর্বত্রই মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীদের আটক করে নির্মমভাবে হত্যা করার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সোচ্চার হওয়ার জন্য আমি দেশি-বিদেশি সকল মানবাধিকার সংস্থা ও দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। ঝিনাইদহ জেলার গান্না সাংগঠনিক থানা ছাত্রশিবিরের সভাপতি মোঃ জসীম উদ্দিনকে আটক করার পর গুলি করে নির্মমভাবে হত্যা করার ঘটনার সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত করে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান এবং জয়পুরহাট সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও জয়পুরহাট শহর জামায়াতের আমির হাসিবুল আলম লিটনসহ সারা দেশে জামায়াত-শিবিরের গ্রেফতারকৃত সকল নেতাকর্মীদের অবিলম্বে মুক্তি দেয়ার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

Print Friendly, PDF & Email