শেখ হাসিনাকে তিন দিনেই ফেলে দিতে পারতাম: বঙ্গবীর

0
222

রাজশাহী: কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও জিয়াউর রহমানের এই যে দ্বন্দ্ব, এই দ্বন্দ্ব করে যারা বাংলাদেশকে লুটেপুটে খাচ্ছে, আল্লাহ যদি আমাকে সময় দেন তাহলে শেখ মুজিব আর জিয়াউর রহমানের দ্বন্দ্ব আমি ঘুচিয়ে দেব ইনশাআল্লাহ।

শুক্রবার বিকেলে রাজশাহীর ঐতিহাসিক মাদাসার মাঠে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জনসভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এই কথাগুলো বলেন।

তিনি বলেন, আমি বিএনপির সভায় আসি নাই। কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ঐক্যফ্রন্টের সভায় এসেছি জোটের সমাবেশে। আপনারা যদি খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে চান তাহলে আপনাদের ঐক্যফ্রন্টকে অটুট রাখতে হবে।

বিএনপির উদ্দেশ্যে বলেন, লাগাতার হরতার-অবরোধ দিয়েছিলেন বেগম খালেদা জিয়া। ২০১৫ সালে আমি অনুরোধ করেছিলাম অবরোধ প্রত্যাহার করুন, মানুষকে বাঁচতে দিন। অবরোধ প্রত্যাহার করা হয় নাই। দেশের মানুষ বিএনপির অবরোধ নিজেরাই প্রত্যাখ্যান করেছে। শেখ হাসিনাকে বলেছিলাম আলোচনায় বসুন, দেশের মানুষকে বাঁচান। তিন বছর পরে হলেও তাকে আলোচনায় বসতে হয়েছে।

তিনি সমাবেশে উপস্থিত নারী নেতা-কর্মীদেরকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনাদের এই দুঃসময়ে এই মিটিংয়ে যেকটা মেয়ে এসেছে, এর অর্ধেকটি মেয়ে আমার দলে থাকলে আমি শেখ হাসিনাকে তিন দিনের মধ্যে সরকার থেকে ফেলে দিতে পারতাম।

তিনি বর্তমান আওয়ামী লীগের সমালোচনা করে বলেন, বিএনপি রাজাকারের গাড়িতে পতাকা দেয় নাই। শেখ হাসিনা রাজাকারের গাড়িতে প্রথম পতাকা দিয়েছেন। কাদেরিয়া বাহিনী যাকে বন্দি করে জামালপুর জেলে রেখেছিল, সেই জামালপুরের সরিষাবাড়ির নুরু মওলাকে প্রথম পতাকা দিয়েছে ধর্মমন্ত্রী হিসেবে। তারপর রংপুরের আশিকুর রহমান, চাঁদপুরের মহিউদ্দিন আলমগীর, ময়মনসিংহের ডিসি, টাঙ্গাইলের ডিসি আমার ব্রিগেডিয়ার ফজলুর রহমান আশিকুর রহমানকে পাছায় লাথি মারতে মারতে জেলখানায় দিয়েছিলাম।

Print Friendly, PDF & Email