সরকার জিহাদী বইয়ের তালিকা প্রকাশ করছে না কেন: প্রশ্ন জামায়াতের

0
364

ঢাকা: সরকার ‘জিহাদী’ বইয়ের তালিকা প্রকাশ করছে না কেন এমন প্রশ্ন তুলেছেন জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগর আমির মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান। বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি সরকারের প্রতি এ রাখেন।

বিবৃতিতে রফিকুল ইসলাম খান বলেন, সরকার দেশকে বিরোধী দল শূন্য করতে এক গভীর চক্রান্তে লিপ্ত হয়েছে। তাই জঙ্গি ইস্যুকে হাতিয়ার বানিয়ে সারাদেশে নির্বিচারে নীরহ জনগণকে গ্রেপ্তার,  হামলা-মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। পুলিশ অভিযানের নামে সাধারণ ছাত্রদেরকে গ্রেপ্তার করে জিহাদী বই উদ্ধারের নাটক সাজাচ্ছে।  নচেৎ সরকার জিহাদী বইয়ের তালিকা প্রকাশ করছে না কেন? আর এসব সাজানো নাটক দেশবাসীর কাছে দিবালোকের মত স্পষ্ট। সেই ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবেই গতকাল রাতে রাজধানীর হাজারীবাগ ও ধানমন্ডি থানার বিভিন্ন এলাকায় কথিত অভিযানের নামে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে ১৪ জন নিরাপরাধ ছাত্র ও ১জন নীরহ ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। যা সম্পূর্ণ অন্যায় ও আইনের শাসনের পরিপন্থী।

তিনি বলেন, সরকার ৫ জানুয়ারির তামাশার নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসে জাতির ঘাড়ে জগদ্দল পাথরের মত চেপে বসেছে। সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদ লালনের কারণে দেশবাসী অতিষ্ট হয়ে উঠেছে অথচ উল্টো এসবের দায়ভার বিরোধী দলের উপরে চাপিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে। যেখানে দেশের বিভিন্ন স্থানে পুলিশের সামনেই আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা প্রতিনিয়ত অন্তকোন্দলে বন্দুকযুদ্ধে লিপ্ত হচ্ছে, যারা জনজীবন বিপন্ন করে তুলছে। এসব বন্দুক কার? পুলিশ কি এসব দেখে না? এরা কি সন্ত্রাসী নয়? কেন এসব চিহৃত সন্ত্রাসীদের এখনো গ্রেপ্তার করা হচ্ছেনা? কার স্বার্থে জনজীবন অতিষ্টকারী চিহিৃত অস্ত্রবাজ সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার না করে উল্টো নীরহ ছাত্রদেরকে অন্যায়ভাবে গ্রেপ্তার করে ছাত্রদের শিক্ষাজীবনকে বিপন্ন করে তোলা হচ্ছে?

তিনি আরও বলেন, সরকারের এহেন অগণতান্ত্রিক আচরণ কোনভাবেই মেনে নেয়া যায়না। তাই দেশ ও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে সরকারকে অশুভ বৃত্ত থেকে অবশ্যই বেড়িয়ে আসতে হবে। হাজারীবাগ ও ধানমন্ডি থেকে অন্যায়ভাবে শিক্ষার্র্থীসহ ১৫ জনকে গ্রেফতারের তীব্র  প্রতিবাদ জানাই এবং গ্রেফতারকৃতদের অবিলম্বে মুক্তি দাবি করছি।

Print Friendly, PDF & Email