সাজেদার জনসভায় হট্টগোল, আওয়ামীলীগ সভাপতিকে গণপিটুনি

0
143

ফরিদপুর: ফরিদপুরের সালথায় সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর জনসভায় হট্টগোলের ঘটনায় গণপিটুনির শিকার হয়েছেন সালথা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন। পরে তাকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে।

বুধবার বিকেলে সালথা উপজেলার ইউসুফদিয়া গ্রামে ভাওয়াল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে। ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. কামরুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। অনুষ্ঠানে বিএনপি সমর্থিত বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ওয়াহিদুজ্জামানের নেতৃত্বে দুই শতাধিক কর্মী বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।

স্থানীয় সূত্রমতে, আওয়ামী লীগে যোগদান উপলক্ষে বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ওয়াহিদুজ্জামান দুই শতাধিক কর্মী নিয়ে অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছান। এর পরপরই সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেনের সমর্থক আনোয়ারের নেতৃত্বে আরো কিছু লোক মিছিলসহকারে সভাস্থলে আসে। এ সময় দেলোয়ার হোসেন মঞ্চে উপবিষ্ট ছিলেন। পরে মঞ্চের কাছে দাঁড়ানোকে কেন্দ্র করে বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও সাবেক চেয়ারম্যানের সমর্থকদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে তা সংঘর্ষে রূপ নেয়। এ সময় সাবেক চেয়ারম্যান মঞ্চ থেকে নেমে এসে সংঘর্ষ থামাতে চেষ্টা করলে তিনি গণপিটুনির শিকার হন।

সভাস্থলে হট্টগোল সৃষ্টি করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর ছেলে আয়মন আকবর চৌধুরী বাবলু। তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে দেলোয়ার হোসেনকে আটক করতে বললে পুলিশ তাকে নিরাপদ হেফাজতে নেয়।

ভাওয়াল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওয়াহাবের সভাপতিত্বে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী প্রধান অতিথি ছিলেন।

হট্টগোলের আগেই তার হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে বিএনপি সমর্থিত বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ওয়াহিদুজ্জামান ও তার দুই শতাধিক কর্মী আওয়ামী লীগে যোগদান সম্পন্ন করেন।

Print Friendly, PDF & Email