‘সিনিয়র সিটিজেন’ মর্যাদা পেল ষাটোর্ধ্ব বয়সের নাগরিকরা

0
512

Abdul hamid 03
ঢাকা: দেশের ষাটোর্ধ্ব বয়সের নাগরিকরা সিনিয়র সিটিজেনের মর্যাদা পেয়েছেন। এঁদেরকে সিনিয়র সিটিজেন হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। দেশের এক কোটি ৩০ লাখ প্রবীণ এ বিশেষ মর্যাদা পাচ্ছেন। বৃহস্পতিবার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ ঘোষণা দেন।
এ ঘোষণার ফলে দেশের ১ কোটি ৩০ লাখ সিনিয়র নাগরিক সব ধরনের পরিবহনে কম ভাড়ায় যাতায়াত, হাসপাতালে সাশ্রয়ী মূল্যে আলাদা চিকিৎসাসেবা, আলাদা বাসস্থান সুবিধাসহ বিভিন্ন সরকারি সুবিধা পাবেন। নির্বাচন কমিশন থেকে শিগগিরই বয়স্ক নাগরিকদের আলাদা পরিচয়পত্র দেওয়া হবে।
সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সূত্র অনুযায়ী, দেশে মৃত্যুহার কমে যাওয়ায় প্রবীণদের সংখ্যা বাড়ছে। ১৯৯০ সালে প্রবীণদের সংখ্যা ছিল ৪ দশমিক ৯৮ শতাংশ। ২০০১ সালে তা বেড়ে ৬ দশমিক ৯৮ শতাংশে দাঁড়ায়। আগামী ২০৫০ সালে প্রবীণদের সংখ্যা বেড়ে মোট জনসংখ্যার ২০ শতাংশ হবে।
এ অবস্থায় প্রবীণদের সিনিয়র সিটিজেনের স্বীকৃতি দিতে ২০১৩ সালের ১৭ নভেম্বর জাতীয় প্রবীণ নীতিমালার খসড়া অনুমোদন করে সরকার। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে জাতীয় অধ্যাপক ডা. এম আর খানকে সভাপতি করে ১০ সদস্যের একটি কোর কমিটি গঠন করা হয়।
সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলীর সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় অধ্যাপক এম আর খান, সমাজকল্যাণ সচিব নাছিমা বেগম, প্রবীণ হিতৈষী সংঘের মহাসচিব এ এস এম আতীকুর রহমান প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email