Home বিশেষ সংবাদ সিলেটে আত্মঘাতী হামলার পর দেশজুড়ে বিশেষ নিরাপত্তা

সিলেটে আত্মঘাতী হামলার পর দেশজুড়ে বিশেষ নিরাপত্তা

437
0

ঢাকা: দেশের কয়েকটি স্থানে সম্প্রতি জঙ্গি হামলা ও মহান স্বাধীনতা দিবসকে সামনে রেখে দেশজুড়ে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড, ঢাকার আশকোনায় র্যা বের অস্থায়ী ক্যাম্প, খিলগাঁওয়ে র্যা বের চেকপোস্ট, বিমানবন্দরে পুলিশ বক্সের কাছে আত্মঘাতী বোমা হামলা ও সর্বশেষ সিলেটে আত্মঘাতী হামলার ঘটনায় জনগণের নিরাপত্তা রক্ষায় দেশজুড়ে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।
এছাড়া দেশের তিনটি বিমানবন্দর, কারাগার, হাসপাতাল, রেল স্টেশনগুলোসহ সকল স্থলবন্দর ও নদী বন্দরে বিশেষ সর্তকতা জারি করা হয়েছে।
কয়েক সপ্তাহের ব্যবধানে দেশের বিভিন্ন স্থানে জঙ্গি হামলা ও জঙ্গি আস্তানায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অব্যাহত অভিযানে বেপরোয়া হয়ে উঠে জঙ্গি সংগঠনের সদস্যরা। বিভিন্ন স্থানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তল্লাশি অভিযানের ফলে জঙ্গিরা কোনঠাসা হয়ে পরেছে।
গোয়েন্দা সূত্র মতে, বিভিন্ন স্থানে জঙ্গিবিরোধী অভিযানে একের পর এক স্থান পরিবর্তন করে তারা রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে নিরাপদ আশ্রয় খুঁজছে।
কয়েক সপ্তাহে দেশে এসব ঘটনায় উদ্বিগ্ন সরকারের উচ্চ পর্যায়ে করণীয় সম্পর্কে একাধিক বার বৈঠক করে দেশজুড়ে বিশেষ নিরাপত্তা গ্রহণের পাশাপাশি ব্লকরেইড ও জঙ্গি দমনের বিশেষ বাহিনী গঠনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
এছাড়া মহান স্বাধীনতা দিবসে বিভিন্ন কর্মসূচিতে ভিভিআইপি ও ভিআইপিদের অংশগ্রহণ ও তাদের যাতায়াত নিবিঘ্ন করতে কঠোর নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়েছে।
মহান স্বাধীনতা দিবসকে কেন্দ্র করে রাজধানী ছাড়াও দেশজুড়ে পুলিশ, র্যা বের তল্লাশি চেকপোষ্টের পাশাপশি সাদা পোশাকে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যদের নজরদারী বাড়ানো হয়েছে।
পুলিশের আইজিপি শহিদুল ইসলাম জানান, যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য দেশের সকল পুলিশের উইনিটকে সর্বোচ্চ সতর্কপন্থায় থেকে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। জঙ্গি হামলা রোধসহ সবধরনের নাশকতার আশংকা মাথায় রেখে দেশের সকল স্থানে পোশাকের পাশাপাশি সাদা পোশাকে গোয়েন্দা নজরদারী বাড়ানো হয়েছে। যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য দায়িত্বরত পুলিশের পাশাপাশি অতিরিক্ত পুলিশ সদস্যদের ষ্ট্যানবাই রাখা হয়েছে। বাড়ানো হয়েছে চেকপোষ্টের সংখ্যা।
এদিকে পুলিশের পাশাপাশি র্যােবের ভ্রাম্যমাণ চেকপোষ্ট পরিচালনা করা হচ্ছে শুক্রবার থেকেই। নিয়মিত টহলের পাশাপাশি সন্দেহভাজন ও জনসমাগম স্থানে র্যামবের টহল দল তাৎক্ষণিকভাবে চেকপোষ্ট বসিয়ে সন্দেহভাজন ব্যাক্তি ও যানবাহনে তল্লাশি চালাচ্ছে।

র্যা বের গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান জানায়, পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে দেশের ১৪ টি র্যাাবের ব্যাটালিয়নে সদস্যদের সব ধরনের নিরাপত্তা মূলক ব্যবস্থা গ্রহণের পাশাপশি গোয়েন্দা নজরদারী আগের থেকে বাড়ানো হয়েছে। চালানো হচ্ছে সন্দেহভাজন স্থান গুলোতে বিশেষ অভিযান।
প্রসঙ্গত, সিলেটের জঙ্গি আস্তানাটির অদূরে পুলিশের চেকপোস্টে শনিবার পৃথক দুটি আত্মঘাতী বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে জঙ্গিরা। এতে দুই পুলিশসহ অন্তত ৪ নিহত এবং র্যাজব-পুলিশসহ অর্ধশতাধিক আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এছাড়াও, দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি হারুনর রশীদসহ ৪৫ জনকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতের সংখ্যা আরো বড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Previous articleযারা ২৫ মার্চ পালন করে না, তারা মুক্তিযুদ্ধকে স্বীকার করে না: কাদের
Next articleমুক্তিযুদ্ধের অন্যতম লক্ষ্য ছিল গণতান্ত্রিক সমাজ প্রতিষ্ঠা