সিলেটে শিশু সাঈদ হত্যা মামলায় তিনজনের ফাঁসি

0
150

সিলেট: সিলেটে বহুল আলোচিত শিশু আবু সাঈদ অপহরণ ও হত্যা মামলায় পুলিশ কনস্টেবলসহ তিনজনের ফাঁসির রায় দিয়েছেন আদালত। এছাড়া একজনকে খালাস দেয়া হয়েছে। ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা সিলেটের বিমানবন্দর থানার বহিস্কৃত কনস্টেবল এবাদুর রহমান পুতুল, সিলেট জেলা ওলামা লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাকিব ও র‌্যাবের কথিত সোর্স আতাউর রহমান গেদা।

অপহরণ ও হত্যা মামলায় পৃথক ধারায় তাদের ডাবল মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন আদালত। খালাস দেয়া হয় ওলামা লীগ নেতা মাহিব হোসেন মাসুমকে। সিলেটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক আব্দুর রশিদ সোমবার বিকেলে জনাকীর্ণ আদালতে এই রায় ঘোষণা করেন।

এ সময় এজলাসে উপস্থিত ছিল আসামি এবাদুর রহমান পুতুল, আব্দুর রাকিব, আতাউর রহমান গেদা এবং ওলামা লীগ নেতা মাহিব হোসেন মাসুম। আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট আব্দুল মালেক জানান, মাত্র আট কার্যদিবসেই শেষ হয়েছে মামলার বিচারকার্য। নবম কার্যদিবসে দেয়া হয়েছে রায়।

আদালত সূত্র জানায়, শিশু সাঈদ হত্যা মামলায় ৩৭জন সাক্ষীর বিপরীতে ২৮ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে। গত ১৭ নভেম্বর চার্জ গঠনের মাধ্যমে শিশু সাঈদ হত্যা মামলার বিচারকাজ শুরু হয়।

গত ১১ মার্চ নগরীর শাহ মীর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র আবু সাঈদ (৯) অপহৃত হয়। অপহরণের তিনদিন পর ১৪ মার্চ নগরীর ঝর্ণারপাড় সোনাতলা এলাকায় পুলিশ কনস্টেবল এবাদুর রহমান পুতুলের বাসার ছাদের চিলেকোটা থেকে আবু সাঈদের বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ২৩ সেপ্টেম্বর এ মামলায় চারজনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন কোতোয়ালি থানার ওসি মোশাররফ হোসেন।

Print Friendly, PDF & Email