সুনামগঞ্জের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের পাশে আমরা আছি: জেলা প্রশাসক

0
276

 

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম বলেছেন, শুধু ফলাফলের পিছনে দৌড়ালে হবে না, প্রকৃত শিক্ষার মানোন্নয়নে সবাইকে কাজ করতে হবে। শিক্ষক, অভিভাবক ও ছাত্র এ তিনে মিলে সমন্বয় সাধন করতে হবে। তাহলে মান সম্মত শিক্ষা অর্জন করা সম্ভব হবে। তিনি শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে বলেন, চাকুরি করি বেতন পাই, এ ধরণের মনোভাব পরিবর্তন করতে হবে। শিক্ষকদের নিজে ভাল আচরণ করতে হবে। পরিস্কার পরিছন্ন পোষাক পরিধান করতে হবে। শিক্ষার্থীদের তা করতে উৎসাহিত করতে হবে। স্কুলে যথা সময়ে উপস্থিত থেকে নিয়মিত পাঠদান করাতে হবে। সব মিলিয়ে শিক্ষার মানোন্নয়নে জাগরণ সৃষ্টির মাধ্যমে প্রতিটি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের অগ্রনী ভূমিকা পালন করতে হবে। কোন রকম অজুহাত দেখানো যাবে না। শিক্ষকরা তাদের উপর অর্পিত দায়িত্ব আন্তরিকভাবে পালন করলে প্রতিটি শিক্ষার্থী সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে গড়ে উঠবে। তাহলেই আমাদের দেশ মান সম্মত শিক্ষায় আরো এগিয়ে যাবে। তিনি শিক্ষক সংকট ও বিদ্যালয়ের বিভিন্ন অবকাটামো সমস্যা সমাধানে সরকারের পাশাপাশি স্থানীয় ধনাঢ্য ব্যক্তিদের এগিয়ে আসার আহবান জানান। তিনি আরো বলেন, এবার প্রাকৃতিক দুর্যোগ বন্যায় সুনামগঞ্জ জেলার প্রতিটি উপজেলায় বোরো ফসল হানি হয়েছে। আমরা ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের পাশে আছি। তাদেরকে সরকারিভাবে সহায়তা প্রদান করতে আন্তরিকভাবে কাজ করবো।

গতকাল বুধবার জগন্নাথপুর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে স্থানীয় আব্দুস সামাদ আজাদ অডিটরিয়ামে শিক্ষার মানোন্নয়ন বিষয়ক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ হুমায়ূন কবিরের সভাপতিত্বে ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আকমল হোসেন ও ভাইস চেয়ারম্যান মুক্তাদির আহমদ মুক্তা। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আব্দুল কাইয়ূম মশাহিদ, জগন্নাথপুর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুন নুর, রাণীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস সামাদ, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি সুদীপ ভট্রাচার্য্য, শিক্ষক রুমান আহমদ প্রমূখ। এ সময় বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email