সুনামগঞ্জে এক মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি দখল ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের

0
244

নাইম তালুকদার, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জে এক অসহায় মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের সদস্যদের বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করে বাড়ি ও জায়গা জমি দখলের চেষ্টায় অগ্নিসংযোগ, লুটপাঠ ও প্রাণনাশের অব্যাহত হুমকিতে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা। গত ২৯ আগষ্ট ২০১৫ ইং তারিখে দিবাগত রাতে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের জয়নগর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা(মৃত) মনিন্দ্র তালুকদারের গোয়াল ঘরে এ অগ্নিসংযোগের ঘটনাটি ঘটে । এ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধার বিধবা স্ত্রী কমলা রানী তালুকদার গত ১ সেপ্টেম্বর বাদী হয়ে পাশের বাড়ির ভূমিখেকো মৃত হরেন্দ্র তালুকদারের ছেলে হেমন্ত তালুকদার,ধীরেন্দ্র তালুকদারের ছেলে হিমাংশু তালুকদার,মৃত হেমেন্দ্র তালুকদারের ছেলে নৃপেন্দ্র তালুকদার,হেমন্ত তালুকদারের ছেলে জেমস তালুকদার,বিরেন্দ্র তালুকদারের ছেলে বাপ্পি তালুকদার,হিমাংশু তালুকদারের ছেলে হিমেল তালুকদার ও ধীরেন্দ্র তালুকদারের ছেলে কানু রজ্ঞন তালুকদার গংদেরকে বিবাদী করে সদর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।  অভিযোগ সূত্রে জানা যায়,দীর্ঘদিন ধরে এই অসহায় মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি ও জায়গা জমি দখলে নেয়ার জন্য প্রতিপক্ষরা পেশী শক্তির কারণে  হামলা মামলা হুমকি দামকীসহ ঘটনার দিন গভীর রাতে তাদের গোয়ারঘরে আগুন দিয়ে ঘরটি সম্পূর্ণভাবে ভস্মিভূত করে। এতে প্রায় একলক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়। এ ছাড়াও গোয়াল ঘরে থাকা ৭৫ হাজার টাকা দামের দুটি গাভী নিয়ে যায়।

এদিকে প্রতিপক্ষ হেমন্ত তালুকদারের পক্ষের দায়েরকৃত একটি মিথ্যা মামলা দিয়ে মুক্তিযোদ্ধার ছেলে মুকুল তালুকদারকে গত ২৮ আগষ্ট পুিলশ গ্রেফতার করে। এদিকে মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীর দায়েরকৃত মামলার অন্যতম স্বাক্ষী তার ছেলের বউ পাপড়ি তালুকদারকে স্বাক্ষী দেয়া থেকে বিরত না থাকলে বিবাদীরা তাকে খুন করার হুমকি দিচ্ছে বলে  অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয় ।  তাদের প্রাণনাশের হুমকিতে মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের সদস্যরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছেন। অবিলম্বে ঐ সমস্ত পরধনলোভী হেমন্ত তালুকদার গংদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমুলক মাস্তি প্রদানের জন্য মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্থানীয় প্রশাসনের উধর্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট দাবী জানান।

এ ব্যাপারে প্রতিপক্ষ হেমন্ত তালুকদারের সাথে মোবাইল পোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে(মোবাইল নং-০১৭১৫০২০৯৩৪) ফোন রিসিভ না করায় তার অভিমত জানা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে সদর মডেল থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই পবিত্র কুমার সিংহা মুক্তিযোদ্ধার গোয়াল ঘরে অগ্নিসংযোগের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন দেখা যাক বিষয়টি আপসে নিস্পত্তি হয় কিনা। তা না হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email