সোহরাওয়ার্দীতে ছাত্রলীগের ২৯তম সম্মেলন শুক্রবার

0
254

নিজস্ব প্রতিবেদক: ছাত্রলীগের ২৯তম জাতীয় সম্মেলন আগামীকাল শুক্রবার ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিত হবে। বিকাল ৩টায় দুই দিনব্যাপী এ সম্মেলনের উদ্বোধনী অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখবেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সম্মেলনে সারাদেশ থেকে লক্ষাধিক ছাত্রনেতা অংশ নেবেন। গতকাল বুধবার দুপুরে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে ১১ ও ১২ মে সম্মেলনের সার্বিক প্রস্তুতি তুলে ধরেন ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন। নিজেদেরকে শতভাগ সফল দাবি করে সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, ছাত্রলীগ ‘সিন্ডিকেট’ শব্দের সঙ্গে পরিচিত নয়, এটা গুজব।

ছাত্রলীগ সভাপতির কাছে সাংবাদিকদের প্রশ্ন ছিল- অভিযোগ আছে, সিন্ডিকেট দ্বারা ছাত্রলীগ নিয়ন্ত্রিত হয়। আসন্ন সম্মেলনে ছাত্রলীগের নেতৃত্ব কি সিন্ডিকেটের মাধ্যমেই নেতৃত্ব তৈরি হবে নাকি অন্য পন্থায়? জবাবে ছাত্রলীগ সভাপতি সোহাগ বলেন, ‘ছাত্রলীগ সিন্ডিকেট শব্দের সঙ্গে পরিচিত নয়। সিন্ডিকেট শব্দটি ব্যবহার হয় কেবলমাত্র পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার ক্ষেত্রে। শেখ হাসিনার ভ্যানগার্ড ছাত্রলীগের কর্মকাণ্ডকে বিতর্কিত করতেই এই সিন্ডিকেট শব্দটি ব্যবহার করে কিছুসংখ্যক ব্যক্তি বা গোষ্ঠী। ছাত্রলীগের একমাত্র অভিভাবক শেখ হাসিনা। তার নির্দেশেই ছাত্রলীগ পরিচালিত হয়।
সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, আসন্ন সম্মেলন ইতিহাসের সেরা সম্মেলন হবে। আগামী ১১ মে বিকাল ৩টায় সম্মেলন শুরু হবে। প্রথমে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, এরপর শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর শোক প্রস্তাব, সাংগঠনিক রিপোর্ট, প্রধানমন্ত্রীর দিক নির্দেশনামূলক বক্তৃতার পর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এরপর সংগঠনের অভিভাবক আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দ্বিতীয় অধিবেশনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হবে।
ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন বলেন, আমরা শতভাগ সফল দাবি করতেই পারি। শেখ হাসিনার নির্দেশ মোতাবেক প্রতিটি কর্মসূচি পালন করেছি। যখন যে নির্দেশনা দিয়েছেন তা করেছি। আমাদের দায়িত্ব পালনকালে যত সফলতা আছে, সেগুলো ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের প্রত্যেক সদস্যের।
Print Friendly, PDF & Email