সড়কগুলোর বেহালদশার কারণেই এত প্রাণহানি

0
131

ঢাকা: দেশের মহাসড়কগুলোর বেহালদশার কারণেই প্রতিদিন দুর্ঘটনায় এত প্রাণহানির ঘটনা ঘটছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। একইসঙ্গে সড়ক দুর্ঘটনায় বিপুল সংখ্যক মানুষের প্রাণহানি রুখতে সরকার চরম ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছে দলটি। শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির মুখপাত্র ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন এ অভিযোগ করেন।

আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, সরকার জনগণের জানমালের দিকে খেয়াল করছে না। তাদের  খেয়াল কি করে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের মামলা-হামলা দিয়ে হয়রানি করা যায়। জনগণের কথা, দেশের কথা চিন্তা করলে তারা রাস্তাঘাটের উন্নয়ন করতো। সরকার যদি মহাসড়কের বেহালদশার দিকে খেয়াল করতো তাহলে সড়ক দুর্ঘটনা শূন্যের কোটায় নিয়ে আসা সম্ভব হতো।

দেশের পঁচাত্তরের আগের সময়ের মতো ডাকাতির ঘটনা ঘটছে অভিযোগ করে বিএনপির মুখপাত্র বলেন, ১৯৭৫ সালের আগে দেশে ডাকাতির প্রকোপ ছিল। দেশে এখন ৭৫ পূর্ববর্তী সেই ডাকাতি ফিরে এসেছে। কেবল ডাকাতি নয়, ডাকাতির সঙ্গে ব্যাপকহারে নারীদের সম্‌ভ্রমহানি ঘটানো হচ্ছে, যা খুবই উদ্বেগজনক।
ছাত্রদল সভাপতির মুক্তির দাবি জানিয়ে ড. রিপন বলেন,  ছাত্রলীগের কাউন্সিলে ছাত্রদলকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।  যা দেশে একটি সুন্দর ও ইতিবাচক ঘটনার জন্ম হয়েছে। দেশের সংঘাতের রাজনীতির মধ্যে এ ছোট্ট ঘটনাটি দেশের রাজনীতির জন্য অত্যন্ত ইতিবাচক।

তিনি বলেন, ছাত্রলীগের সম্মেলনে ছাত্রদল নেতাদের আমন্ত্রণ জানানো একটি শুভ লক্ষণ। এই সঙ্গে দাবি করছি- ছাত্রদল সভাপতিকে অবিলম্বে মুক্তি দিয়ে সে যাতে ছাত্রলীগের কাউন্সিলে যেতে পারে সরকার দ্রুত সে ব্যবস্থা নেবে। রাজনীতিতে আমরা সকলেই আশা নিয়ে থাকি। আমরা আশা করবো সরকার বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলায় হয়রানি করা থেকে বিরত থাকবে।

রিপন বলেন, দেশে দু’ধরনের আইন চলছে- সরকারের জন্য একরকম, বিরোধী দলের জন্য অন্য রকম। বিরোধী দলের নেত্রীর জন্য এক ধরনের আইন, শাসক দলের জন্য আরেক ধরনের আইন। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, নাজিম উদ্দিন আলম, সহ-স্বেচ্ছাসেবক সম্পাদক এবিএম মোশাররফ হোসেন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, সহ-দপ্তর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email