হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে জনমত গড়তে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান

0
351

Hasina

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইসমালের মর্মবাণী প্রচারের পাশাপাশি আন্দোলনের নামে মানুষ হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলতে দেশের আলেম উলেমা ও সুফীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, ইসলাম ধর্মে বিশ্বাসী কোনো মানুষ কি করে পেট্রলবোমা দিয়ে আগুনে পুড়িয়ে মানুষ মারতে পারে।
শেখ হাসিনা বলেন, জনগণ সকল ক্ষমতার উৎস। ফলে মানুষ হত্যাকারী, সাধারন নিরীহ মানুষকে নির্যাতনকারীদের বিরুদ্ধে জনমত গঠনে তিনি আলেম উলেমা ও সুফীদর প্রতি আহ্বান জানান।
শনিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত আন্তর্জাতিক সুফী সম্মেলন-২০১৫ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এ আহ্বান জানান।
বাংলাদেশে এই প্রথমবারের মতো ‘সুফীবাদ বিশ্ব শান্তির একমাত্র পথ’ এই শ্লোগান নিয়ে বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন (বিটিএফ) দিনব্যাপী এই সম্মেলনের আয়োজন করে।
বিটিএফ-এর সভাপতি সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারি এমপির সভাপতিত্বে সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বিটিএফ-এর সেক্রেটারি জেনারেল নাইয়ন এম এ আওয়াল এমপি, বিটিএফ-এর আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ তায়াবুল বাশার মাইজভান্ডারি, বাংলাদেশে কূটনৈতিক কোরের ডীন শের মোহাম্মদ মিনহাজুল কোরআন ইন্টারন্যাশনালের প্রতিনিধি আফজাল হোসেন সাঈদী, দরগা-ই-নিজাম উদ্দিন ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি সৈয়দ নাজিম আলী নিজামি এবং ভারতের আজমীরের খাজা মঈনউদ্দিন চিশ্তি ফাউন্ডেশনের সেক্রেটারি জেনারেল খাজা ওয়াহিদ হোসেন চিশ্তি। সম্মেলনের আহ্বায়ক ড. সৈয়দ রেজাউল হক চাঁদপুরী শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন।
প্রধানমন্ত্রী ইসলামকে শান্তি ও সম্প্রীতির ধর্ম হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, এটি একটি দুর্ভাগ্যের বিষয়। বাংলাদেশে মানুষ হয়ে মানুষ হত্যা করছে। তিনি বলেন, তথাকথিত আন্দোলনের নামে নারী ও শিশুসহ নিরীহ মানুষদেরকে পেট্রলবোমা দিয়ে হত্যা করা হচ্ছে। এতে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি হচ্ছে।
শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি-জামায়াত ইসলামের নামে রাজনীতি করছে। কিন্তু আমি যখন দেখি তাদের ধ্বংসাত্মক কার্যকলাপ থেকে মসজিদও রক্ষা পায় না তখন বিষ্মিত হই। এর চেয়ে আর জঘন্য কোনো কাজ হতে পারে না। বিএনপি-জামায়াত পবিত্র কোরআন শরীফ আগুন দিয়ে পুড়িয়ে অবমাননা করেছে। তারা শত শত কোরআন শরীফ আগুন দিয়ে পুড়িয়েছে। এ ধরনের কোরআন পোড়ানোর ঘটনা ইসলামের ইতিহাসে আর নেই।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে। জনগণ যখন শান্তিতে বসবাস করছে তারা আস্থা ফিরে পেয়েছে, ঠিক সে মুহূর্তে বিএনপি-জামায়াত কোনো কারণ ছাড়াই আবার মানুষ হত্যা করছে।
শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি-জামায়াত পেট্রল দিয়ে নির্মমভাবে মানুষ পুড়িযে মারছে। আমার জিজ্ঞাসা এই সকল নিরীহ মানুষ কি অপরাধ করছে এবং তারা এ ধরনের জঘণ্য কাজ করে কি পেয়েছে?
শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি-জামায়াত তাদের নিজেদের ধর্মের লোকদেরকেও ছাড় দিচ্ছে না। এমনকি তারা মহানবী হযরত মুহম্মদ স.-এর নির্দেশও মানে না। তিনি বলেন, আমরা পবিত্র কোরআনে শিখেছি, অপকর্মের জন্য মৃত্যুর পর তাদের কঠিন সাজা হবে। কিন্তু বিএনপি-জামায়াত মানুষদেরকে পুড়িয়ে মেরে মৃত্যুর আগেই শাস্তি দিচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email