৬৫ রানে এগিয়ে বাংলাদেশ

0
386

খুলনা টেস্টে প্রথম ইনিংসে শেষ পর্যন্ত ৬৫ রানে এগিয়ে থাকল বাংলাদেশ। আজ চতুর্থ দিন সকালে জিম্বাবুয়ের প্রথম ইনিংস শেষ হয়েছে ৩৬৮ রানে। হ্যামিল্টন মাসাকাদজার অনন্য ১৫৮ আর রেগিস চাকাভার ১০১ রানের সুবাদে বাংলাদেশের গড়া ৪৩৩ রানের সংগ্রহকে ভালোই চোখ রাঙিয়েছিল জিম্বাবুইয়ানরা। তৃতীয় দিন শেষ বিকেলে মাসাকাদজা ও চাকাভার প্রতিরোধ তাঁদের লিডেরও স্বপ্ন দেখিয়েছিল। কিন্তু চতুর্থ দিন সকালে সাকিব আল হাসান ও রুবেল হোসেনের দারুণ বোলিং জিম্বাবুয়ের সেই স্বপ্ন ভেঙে চুরমার করে দেয়। সাকিব নিজের করে নিয়েছেন তাঁর ত্রয়োদশ ৫ উইকেট-কীর্তি। পুরো ইনিংসে দুর্ভাগ্যের শিকার রুবেল এক ওভারেই এমশাংউই ও চাতারাকে ফিরিয়ে দিয়ে খেলায় ফিরিয়ে নিয়ে আসেন বাংলাদেশকে। জিম্বাবুয়ের ইনিংসের শেষ ছোঁয়াটা দেন তাইজুল। তাঁর বলে সেঞ্চুরিয়ান চাকাভা এলবির শিকার হন। সাকিব ৮০ রানের বিনিময়ে তুলে নিয়েছেন আরও একবার পাঁচ উইকেট। তাইজুলের তিন উইকেট ৯৬ রানের বিনিময়ে। রুবেল ২ উইকেট দখলে নেন ৫৫ রান খরচে।
বাংলাদেশের সামনে দেয়াল হয়ে দাঁড়িয়ে থাকা হ্যামিল্টন মাসাকাদজাকে আজ সকালের প্রথম শিকারে পরিণত করেন সাকিব আল হাসান। তাঁর অফস্টাম্পের বাইরে পড়ে নিচু হয়ে আসা এক বলে বোল্ড হয়ে যান জিম্বাবুয়ে ইনিংসের সেরা ব্যাটসম্যানটি। মাসাকাদজা ফেরার পর শর্ট ফাইন লেগে সাকিবের বলে ম্যালকম ওয়ালারের ক্যাচ ফেলে দিয়েছিলেন শাহাদাত। তবে মুশফিকুর রহিম উইকেটের পেছনে ওই সাকিবের বলেই দারুণ এক ক্যাচ নিয়ে শাহাদাতের মিসটিকে ভয়ংকর হয়ে উঠতে দেননি।
রুবেল পুরো ইনিংসে দারুণ বল করলেও দুর্ভাগ্য তাঁর পিছু ছাড়ছিল না। তাঁর বলে বেশ কয়েকটি হাফ চান্স এলেও সেগুলোকে তিনি উইকেটে পরিণত করতে পারেননি। তবে আজ সকালে তিনি ভালো বোলিংয়ের পুরস্কারটা পেয়ে গেলেন হাতে হাতেই। এক ওভারেই তিনি তুলে নেন চাকারা ও এমশাংউইয়ের উইকেট। চাকারাকে নিজের বলে দারুণ এক ক্যাচে পরিণত করেন। তাঁর বলে এমশাংউইর ক্যাচটি উইকেটের পেছনে ধরেন মুশফিকুর রহিম। এই প্রতিবেদন লেখার সময় নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমেছে বাংলাদেশ। মধ্যাহ্নবিরতির আগ পর্যন্ত এলটন চিগুম্বুরার ওভারটি থেকে বাংলাদেশ তুলেছে ২ রান। দুটি রানই এসেছে অতিরিক্ত খাত থেকে।

Print Friendly, PDF & Email