আওয়ামী লীগ গণতন্ত্র ও স্বাধীন প্রতিষ্ঠান ধবংশ করে দিয়েছে: মির্জা ফখরুল

0
274

Fokrul 07
স্টাফ রিপোর্টার: বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামীলীগ দেশের গণতন্ত্র, নির্বাচনী ব্যবস্থা ও সকল স্বাধীন প্রতিষ্ঠান ধবংশ করে দিয়েছে। ৫ জানুয়ারীর ভোটার বিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে এক দলীয় শাসন ব্যবস্থা পাকাপোক্ত করছে। ৫ জানুয়ারীর নির্বাচন বাংলাদেশের জনগন এবং বর্হিবিশ্বের কোন দেশ গ্রহণ করেনি। তিনি আরো বলেন, বিচার ব্যবস্থার উপর হস্তক্ষেপ করার জন্য তাদের অভিশংসন আইন একটি অকার্যকর সংসদের হাতে নিয়ে গেছে। আওয়মীলীগের সমালোচনা করে বলেন, ৭৫ সালে গণতন্ত্রকে হত্যা করে এক দলীয় শাসন ব্যবস্থা বাকশাল কায়েমের মধ্য দিয়ে জনগনের সকল অধিকার কেড়ে নেয়া হয়েছিল। ৭৫ সালের ৭ নভেম্বর জিয়াউর রহমান সিপাহী জনতার বিপ্লবের মধ্য দিয়ে দেশের পুনরায় গনতান্ত্রিক ব্যবস্থা চালু করেছিল দেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি থেকে মুক্ত করে একটি সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করতে। জিয়াউর রহমান চেয়েছিলেন এমন এক দর্শন হবে যা সমগ্র দেশবাসী এক জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হবে।
তিনি বলেন, গত ৩ বছরে বর্তমান সরকার ৩০হাজার কোটি টাকা লুটপাট করেছে। তাদের বিরুদ্ধে কোন কথা বললে এখন রাষ্ট্রদ্রোহী মামলা হয়। প্রতিদিন দেশে ২০/৩০টি খুনের ঘটনা ঘটছে। অপহরণের ঘটনাও ঘটে চলেছে। বিএনপি’র সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান তথ্য ভিত্তিক কথা বললেও এর জবাব না দিয়ে জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে অরাজনৈতিক ভাষায় কথা বলছে। ফেরাউন, নমরুদ, মোসেলিনী ও পাকিস্তানের আইয়ুব খানের পরিনতি আমরা দেখেছি। আওয়ামীলীগও এ পরিণতির জন্য এখন অপেক্ষা করছে। বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে মামলার প্রসঙ্গে বলেন, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাষ্টের মাধ্যমে একটি এতিম খানা প্রতিষ্ঠা এবং বাকী টাকা ব্যাংকে গচ্ছিত রাখা হয়েছে। অথচ তাকে রাজনৈতিক হয়রানির জন্য সরকার তার বিরুদ্ধে এসকল মামলা পরিচালনা করছে। তিনি সোমবার দুপুরে স্থানীয় জাতীয় বীর আব্দুল কুদ্দুছ মাখন পৌর মুক্ত মঞ্চে আয়োজিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপি’র ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। তিনি আগামী দিনের সরকার বিরোধী আন্দোলনে বেগম জিয়ার নেতৃত্বে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানান।
সোমবার বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সম্মেলন ব্যাপক ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা উৎসবমুখর পরিবেশে শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর মুক্ত মঞ্চে সকাল ১০ টায় প্রথম অধিবেশনে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান সাবেক প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব এডভোকেট হারুন আল রশীদ। সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। জেলা বিএনপির আহবায়ক সাবেক পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান মোল্লা কচির সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব জহিরুল হক খোকনের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেস্টা সাবেক প্রতিমন্ত্রী উকিল আব্দুস সাত্তার, চেয়ারপার্সনের উপদেস্টা সাবেক সচিব মুশফিকুর রহমান, কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মোহাম্মদ শাহজাহান, চট্রগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম আকবর খন্দকার,সাবেক এমপি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটর সদস্য আলহাজ্ব কাজী আনোয়ার হোসেন, সাবেক এমপি এম.এ খালেক, কেন্দ্রীয় আইন বিষয়ক সহ সম্পাদক এডঃ খোরশেদ আলম, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য তকদীর হোসেন মোঃ জসীম,আলহাজ্ব রফিক শিকদার প্রমুখ। স্থানীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুগ্ম আহবায়ক জিল্লুর রহমান , এডঃ শফিকুল ইসলাম,ইঞ্জিনিয়ার খালেদ হোসেন মাহবুব শ্যামল,হাজী মোঃ জাহাঙ্গীর,মোবারক মুন্সি,রফিকুল হক,এডঃ গোলাম সারোয়ার খোকন,এডঃ আনিছুর রহমান মন্জু, জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি হেবজুল বারী,মহিলা দলের সভানেত্রী এডঃ ইশমত আরা, যুবদলের আহবায়ক মোঃ মনির হোসেন, আলী আজম, ছাত্রদলের সভাপতি শামীম মোল্লা , সাধারণ সম্পাদক ইয়াসিন মাহমুদ সহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

Print Friendly, PDF & Email