আখাউড়ায় গণধর্ষণের শিকার কিশোরী

0
228

আখাউড়া: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় এক কিশোরী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় রবীন নামে এক অটোরিকশা চালককে আটক করে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যরা। পরে তাকে আখাউড়া থানা পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয়। রবিন উপজেলার দক্ষিণ ইউনিয়নের হিরাপুর গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে।

পুলিশ ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, বুধবার সন্ধ্যায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার সুহিলপুর থেকে এক কিশোরী তার ভাইয়ের শ্বশুড়বাড়ি আখাউড়ার বাউতলা যাওয়ার পথে অটোরিকশা চালক রবিন তাকে কৌশলে উপজেলার সীমান্তবর্তী উমেদপুর গ্রামে নিয়ে যায়। এ সময় ভয় দেখিয়ে তাকে মো. জামাল মিয়া (২৩), ইয়ামিন মিয়া (১৮), জুনায়েত (১৯) ও অজ্ঞাত এক ব্যক্তি (৫০) সেনারবাদী এলাকায় একটি জঙ্গলে নিয়ে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এ সময় ধর্ষিত কিশোরীর চিত্কার শুনে আখাউড়া আইসিপি বিওপির সদস্যরা এগিয়ে এলে ধর্ষণকারীরা পালিয়ে যায়।

পরে, স্থানীয় জনতার সহযোগিতায় বিজিবি সদস্যরা ধর্ষণ ঘটনায় সহায়তাকারী রবিনকে আটক করে। এ ঘটনায় ধর্ষিত কিশোরী বাদী হয়ে সাতজনকে আসামি করে বৃহস্পতিবার সকালে আথাউড়া থানায় মামলা দায়ের করে।
আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মফিজ উদ্দিন ভূঁইয়া আটক হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ভিকটিমকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে পাঠানে হয়েছে। আর ধর্ষণকারীদের ধরতে ইতিমধ্যেই পুলিশ মাঠে নেমেছে।

Print Friendly, PDF & Email