আরিফকে মনোনয়নে ‘সন্তুষ্ট’ নয় সিলেট বিএনপি

0
589

নিজস্ব প্রতিবেদক : সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করেছে বিএনপি। দলীয় প্রার্থী হিসেবে বিএনপি বেছে নিয়েছে সিলেট সিটি করপোরেশনের বর্তমান মেয়র ও দলের নির্বাহী কমিটির সদস্য আরিফুল হক চৌধুরীকে।

আর দলের এমন সিদ্ধান্তে মোটেও খুশি নন মনোনয়প্রার্থী অন্য প্রার্থী সহ সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির নেতাকর্মীরা। প্রকাশ্যে মূখ না খুললেও দলটির তৃণমূলে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।

দলের মনোনয়ন প্রত্যাশী ও মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম হাইকমান্ডের এমন সিদ্ধান্তের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, দল এমন প্রার্থী ঘোষণা করায় আমি খুশি নই। প্রত্যেক সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আমরা নতুন মুখ দেখতে পাই। তাই আমারও প্রত্যাশা ছিলো সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনেও কোন নতুন মুখ দেখতে পাবো। দলের এমন সিদ্ধান্তে আমি মোটেও খুশি নই। আমাকে ব্যথিত করেছে এমন সিদ্ধান্ত। পরবর্তীতে কি হবে তা এখনই আমি বলতে পারছিনা। তা বলবে সময়।

প্রসঙ্গত, এর আগেও আরিফের প্রতি বিভিন্ন সময় ক্ষোভ দেখান বিএনপির এ নেতাসহ দলের স্থানীয় অন্যান্য নেতা-কর্মীরা। সেময় তারা অভিযোগ এনে বলেছিলেন, মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর দলীয় কর্মকাণ্ডে অনিয়মিত হয়ে পড়েন আরিফ। এড়িয়ে চলতে থাকেন দলীয় বিভিন্ন কর্মসূচি। আর এতে করেই আরিফের সাথে বাড়তে থাকে দলের নেতা-কর্মীদের দূরত্ব। আর তা প্রতিফলিত হলো এবারের দলীয় প্রার্থী ঘোষণার পরপরই।

সিসিকের নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ছিলেন সিলেটের সিটি করপোরেশনের বর্তমান মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সিলেট মহানগর সভাপতি নাসিম হোসাইন, সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকী, সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম, সহ-সভাপতি ও প্যানেল মেয়র রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, মহানগর নেতা ছালাহউদ্দিন রিমন।

উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ৩০ জুলাই সিলেট , বরিশাল ও রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোট গ্রহণ হবে। মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ২৮ জুন। প্রার্থিতা প্রত্যাহার করা যাবে ৯ জুলাই পর্যন্ত।