ইউজিসি পরিচালকের মৃত্যুর ঘটনায় বিচারবিভাগীয় তদন্ত দাবি বিএনপির

0
215

ঢাকা: র‌্যাব হেফাজতে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসির) সহকারী পরিচালক ওমর সিজারের মৃত্যুতে বিচারবিভাগীয় তদন্ত দাবি করেছে বিএনপির মুখপাত্র ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন। তিনি বলেছেন, আইনি হেফাজতে থাকা অবস্থায় কারও মৃত্যু মেনে নেয়া যায় না। এটা কারও কাম্য নয়। এটা বাংলাদেশের মানবাধিকারের ইনডেক্সকে আরও নিচে নিয়ে যাবে। আমরা এটা সমর্থন করি না। এই মৃত্যুর নিন্দা জানাই। এই ঘটনায় বিচারবিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠনের দাবি জানাচ্ছি।

শুক্রবার দুপুরে নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।  বাংলাদেশ সরকারের হজ ব্যবস্থাপনায় সমালোচনা করে বিএনপির মুখপাত্র বলেন, হাজিদের দেখভাল করা ও খোঁজখবর নেয়া সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, ধর্ম মন্ত্রণালয়, হজ মিশন ও সৌদিতে বাংলাদেশ দূতাবাস চরম ব্যর্থ হয়েছে। তাদের ব্যর্থতা ও অবহেলায় হাজিরা অবর্ণনীয় দুর্ভোগে শিকার হয়েছেন। বিএনপি এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে। রিপন বলেন, বাংলাদেশ বিমান ও সৌদি এয়ারলাইনস হজ যাত্রী পরিবহনে নিয়োজিত। কিন্তু সৌদি বিমান কর্তৃপক্ষ সুষ্ঠুভাবে তাদের দায়িত্ব পালন করতে পারলেও বাংলাদেশ বিমান পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে। যার ফলে হাজিরা দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। অবিলম্বে অতিরিক্ত লোকবল পাঠিয়ে হাজিদের দেশে ফেরা নির্বিঘ করার দাবি জানান তিনি। মিনায় পদদলিত হয়ে নিহত হাজিদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় আগামী শুক্রবার কেন্দ্রীয়ভাবে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে এবং দেশব্যাপী মসজিদগুলোতে দোয়া মাহফিল কর্মসূচি পালন করা হবে বলে জানান রিপন।

প্রধানমন্ত্রীর পুরস্কার প্রাপ্তিকে বিএনপি স্বাগত জানিয়েছে দাবি করে রিপন বলেন, ‘দ্বিতীয়বারের মতো বাংলাদেশ এই পুরস্কার পাওয়ায় আমরা খুশি। আমাদের দেশের নাগরিক সৈয়দ আতিক রহমান আট বছর আগে এই পুরস্কার পয়েছিলেন। দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী এই পুরস্কার পাওয়ায় আমরা খুশি।

মেডিকেল ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের প্রতি সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করে বিএনপির মুখপাত্র বলেন, মেডিকেলের ভর্তির জন্য শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ন্যায়সঙ্গত। বিএনপি এই আন্দোলনের প্রতি নৈতিক সমর্থন জানাচ্ছে। একইসঙ্গে শিক্ষার্থীদের প্রতি সদয় আচরণ করার জন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি আহহ্বান জানাচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ক্যাপ্টেন (অব.) সুজাউদ্দিন, সহ-তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, কেন্দ্রীয় নেতা মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email