ইহুদিদের টাকায় এরশাদের বিরুদ্ধে বাম-নাস্তিকদের আন্দোলন: ফিরোজ রশিদ

0
224

ঢাকা: ইহুদি সাম্রাজ্যবাদী ও এদেশের বাম নাস্তিকদের ষড়যন্ত্রের কারণে এরশাদ বাংলাদেশ ইসলামী রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা করতে পারেননি বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ এমপি। তিনি বলেছেন, এরশাদ-বিরোধী এমন আন্দোলন হয়নি যে তাকে ক্ষমতা ছাড়তে হবে। কিন্তু ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম করার কারণে ইহুদিরা মনঃক্ষুণ হয়েছিল। তাদের টাকায় বামরা আন্দোলন করেছে। ষড়যন্ত্রের কারণে এরশাদকে ক্ষমতা ছাড়তে হয়েছিল।

শনিবার রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে বাংলাদেশ ইসলামিক ফ্রন্টের বর্ধিত সভায় তিনি এ কথা বলেন। ইসলামিক ফ্রন্ট এরশাদের নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত জাতীয় জোটের প্রধান শরিক। কাজী ফিরোজ রশিদ বলেন, ‘রাজনীতির খেলা আবার জমে উঠেছে। বিএনপি বিদেশি খেলোয়াড় ভাড়া করায় ব্যস্ত। অন্যদিকে আওয়ামী লীগ রাম-বাম-নাস্তিকদের নিয়ে আবার দল গোছাচ্ছে। কিন্তু আওয়ামী লীগের নৌকায় এখন এত বাম-নাস্তিক আর হাইব্রিড নেতা, তারা নৌকা তীরে ভেড়াতে পারবে কিনা আমার সন্দেহ আছে।’

সভায় সম্মিলিত জাতীয় জোটের চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন এরশাদের প্রেস অ্যান্ড পলিটিক্যাল সেক্রেটারি সুনীল শুভরায়। উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা সুজন দে। ইসলামিক ফ্রন্টের চেয়ারম্যান এমএ মান্নানের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন দলের মহাসচিব এমএ মতিন, প্রেসিডিয়াম সদস্য আলহাজ সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী হারুন, এমএ মতিন ও নঈম উদ্দিন আল কাদরী।

জাতীয় পার্টিই গণতন্ত্রের ধারক-বাহক : জাতীয় পার্টি ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি বলেছেন, জাতীয় পার্টি হল গণতন্ত্রের সত্যিকারের ধারক-বাহক আর সংবিধানের রক্ষক। শনিবার রাজধানীর শ্যামপুরে দুটি নবনির্মিত সড়কের উদ্বোধন উপলক্ষে কদমতলি থানা জাতীয় পার্টি আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বাবলা বলেন, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টি অংশগ্রহণ না করলেও সংবিধান যেমন লংঘিত হতো, ঠিক তেমনি গণতন্ত্রের অগ্রযাত্রাও ব্যাহত হতো। আমরা নির্বাচনে অংশ নিয়ে সংবিধানকে যেমন সম্মুন্নত রেখেছি, ঠিক তেমনি গণতন্ত্রের অগ্রযাত্রাকে চলমান রেখেছি। দেশে নিরবচ্ছিন্ন গণতন্ত্র থাকার কারণেই সরকার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতে পারছে। তাই সরকারের উন্নয়নের অংশীদার জাতীয় পার্টি

কদমতলি থানা জাতীয় পার্টির সভাপতি শামসুজ্জামান কাজলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্যে রাখেন শ্যামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান সাইজুল, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য সুজন দে, শেখ মাসুক রহমান, শ্যামপুর থানা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম মোল্লা, ছাত্র সমাজ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি শাহ ইমরান রিপন, যুব সংহতির কদমতলি থানার আহ্বায়ক আলমগীর হোসেন, মহিলা পার্টির নেত্রী শাহনাজ পারভীন ও পারুল আক্তার।

Print Friendly, PDF & Email