ঈদের প্রাক্কালে এখন কারো মনে আনন্দ নেই: ড. ইউনুস

0
251

চট্টগ্রাম: রাজধানীর অভিজাত এলাকা গুলশানের রেস্তোরাঁয় সন্ত্রাসী হামলার পরিপ্রেক্ষিতের সন্ত্রাসীদের সামাজিক-পারিবারিক অবস্থানের কথা উল্লেখ করে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূস।

এ ধরনের ঘটনার মূলোৎপাটন করার আহ্বান জানিয়ে এ অর্থনীতিবিদ বলেন, ‘আমাদের পরিবারের ভেতরেও এখন আমরা নিরাপদ নই। আমার পরিবারের সদস্য কে কোন দিকে কী কাণ্ড করে ফেলতে পারে।’

‘যে ছেলে মুরগি জবাই করতে ভয় পাবার কথা, সে নির্বিঘ্নে মানুষ জবাই করছে। এই প্রক্রিয়া কীভাবে শুরু হলো তা চিহ্নিত করতে না পারলে জাতি হিসেবে আমরা দাঁড়াতে পারব না’, যোগ করেন ইউনূস।

গুলশানে হামলাকারীদের মতো আরো কত ছেলেমেয়ে এই প্রক্রিয়ায় আছে তা আমরা জানি না উল্লেখ করে পরস্পরকে দোষারোপ না করে এই অবস্থা থেকে উদ্ধার পেতে চেষ্টার আহ্বান জানান এই নোবেলজয়ী।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় স্যোশাল বিজনেস সেন্টার, চট্টগ্রাম আয়োজিত ইফতার মাহফিলে ড. মুহাম্মদ ইউনূস এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে ইস্ট ডেল্টা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মুহাম্মদ সিকান্দার খান, আমীর হুমায়ুন মাহামুদ চৌধুরী ও ফারুকে আজম বীর প্রতীক বক্তব্য দেন।

ঈদের প্রাক্কালে আজ কারো মনে আনন্দ নেই উল্লেখ করে ড. ইউনূস বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশে কোনোদিন গুলশান ট্র্যাজেডির কথা চিন্তা করি নাই। এসব ট্যাজেডি থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য আমাদের যা কিছু করা দরকার তাই করতে হবে। বিলম্ব করলে আমাদের পরিণতি আরো ভয়াবহ হবে।’

‘দুঃস্বপ্ন আমাদের পেছনে তাড়া করছে। এটি যে কত বড় আঘাত তা দেশের বাইরে না গেলে বুঝা কঠিন। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো প্রতিদিন এসব ঘটনা প্রচার করছে। বিশ্বের আনাচে-কানাচের মানুষের কাছে বাংলাদেশের ঘটনা পৌঁছে গেছে। সিএনএনসহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো এখনো বাংলাদেশ নিয়ে ননস্টপ রিপোর্ট প্রচার করে যাচ্ছে।’

ড. ইউনূস আরো বলেন, সারা বিশ্বের কাছে আমাদের এ বার্তা দিতে হবে, যে নমুনা তোমরা দেখেছ, সেটি আমাদের জাতিগত নয়। ভবিষ্যতে যাতে এসব ঘটনা আর না হয় তার জন্য আমাদের প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হতে হবে।

Print Friendly, PDF & Email