কার স্বার্থে গ্যাসের দাম বাড়ানো হচ্ছে: এরশাদ

0
220

স্টাফ রিপোর্টার: গ্যাসের দাম বাড়ানোর কারণ জানতে চান জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। সরকারকে উদ্দেশ করে প্রাক্তন এই রাষ্ট্রপতি বলেন, দেশে কি গ্যাসের সংকট? তাহলে কার স্বার্থে গ্যাসের দাম বাড়ানো হচ্ছে? কী কারণে দাম বাড়বে। আসলে দেশে সুশাসন নেই। এই সুশাসনের অভাবে দেশে সবকিছুর দাম বাড়ানো হচ্ছে। সোমবার বিকেলে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটে জাতীয় শ্রমিক পার্টি আয়োজিত শ্রমিক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এরশাদ এসব কথা বলেন।

প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি বলেন, জাতীয় পার্টির সরকার যাওয়ার পর নতুন কোনো শিল্পকারখানা গড়ে উঠছে না। দেশে বেকারত্ব বাড়ছে। সে অনুযায়ী কর্মসংস্থান হচ্ছে না। তিনি বলেন, করের বোঝা জনগণের ওপর চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে। দেশে এখন জিডিপির প্রবৃদ্ধি ৭-এর উপরে, ব্যাংকে টাকার পাহাড়। কিন্তু শিল্পায়ন হচ্ছে না। তাহলে কর্মসংস্থান কীভাবে হবে?

‘খুব তাড়াতাড়ি দেশ নাকি মধ্য আয়ের দেশে পরিণত হবে। মধ্য আয়ের দেশে কত মানুষ না খেয়ে আছে আমরা কি তার কোনো খবর রাখি?’ প্রশ্ন রাখেন এরশাদ।

জোট গঠন করে ক্ষমতায় যাবেন মন্তব্য করে এরশাদ বলেন, আগামী ৭ মে জাতীয় পার্টির নেতৃত্বে নতুন জোট আত্মপ্রকাশ ঘটবে। এই জোটে অনেকেই থাকছেন।’ নতুন জোট গঠন করে নির্বাচন ও ক্ষমতায় যাওয়ার কথাও বলেন তিনি।

তবে প্রাক্তন এ রাষ্ট্রপতি জাতীয় পার্টির ‘সরকারে ও বিরোধী দলে’ একসঙ্গে থাকার সমালোচনাও করেন।

এরশাদ বলেন, আগে আমাদের আত্মপরিচয় ঠিক করতে হবে। আমরা বিরোধী দল, নাকি সরকারি? জনমনে বিভ্রান্তি রয়েছে। যদি আমরা সত্যিকার পরিচয় জাতিকে দিতে পারি তাহলে আগামীতে ক্ষমতায় যেতে পারব।

জাতীয় শ্রমিক পার্টির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এ কে এম আসরাফুজ্জামান খানের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- জাতীয় পার্টির জ্যেষ্ঠ কো-চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলের নেতা বেগম রওশন এরশাদ, কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, দলের মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য মুজিবুল হক চুন্নু, জাতীয় শ্রমিক পার্টির সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন।

সমাবেশে বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদ বলেন, দেশে এখনো শ্রমিকদের জীবনের কোনো পরিবর্তন আসেনি। কবে আসবে তাও জানি না। তবে আমাদের চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে।

তিনি বলেন, শ্রমিকরা আজ নির্যাতিত। তাদের জীবনের কোনো মূল্য নেই। অথচ তাদের শ্রম-ঘামে বাংলাদেশ আজ এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছে।

‘আসলে শ্রমিকদের উন্নয়নের জন্য জাতীয় পার্টির সরকার দরকার। মুখে বললে হবে না। দলকে শক্তিশালী করে আমাদের ক্ষমতায় যেতে হবে। শ্রমজীবীসহ দেশের মানুষের প্রত্যাশা পূরণ করতে হবে’ বলেন রওশন এরশাদ।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য এসএম ফয়সল চিশতী, সুনীল শুভরায়, সাহিদুর রহমান টেপা, সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, এহয়্যা চৌধুরী এমপি, ব্যারিস্টার দিলারা খন্দকার, মেজর অব. খালেদ আখতার, ইকবাল হোসেন রাজু, আরিফ খান, জহিরুল ইসলাম জহির, মহিলা পার্টির সেক্রেটারি অনন্যা হোসেন মৌসুমি, নাজমা আখতার, গোলাম মোহাম্মদ রাজু, আলমগীর সিকদার লোটন, সুলতান মাহমুদ, আসমা আশরাফ, ফখরুল আহসান শাহজাদা, মিজানুর রহমান মিরু প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email