ক্যারিশম্যাটিক ব্যক্তিত্ব হতে ১০ পরামর্শ

0
484

Tips
ডেইলী আমার বাংলা: একজন মানুষ আমাদের কাছে খুব দ্রুত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে। আবার হতে পারে বিশেষ কেউ। আসলে সবাই তাকে কিভাবে গ্রহণ করবে, তা নির্ভর করে ব্যক্তিত্ব ফুটিয়ে তোলার ওপর। এখানে ১০টি পরামর্শ দেওয়া হলো। এর মাধ্যমে মানুষের মধ্যে নিমিষেই ক্যারিশম্যাটিক ব্যক্তিত্ব হয়ে উঠতে পারবেন।
১. কম কথা বলে বেশি শুনুন: কথা বলতে মানা নেই। তবে কিছু জানার জন্য প্রশ্ন করুন। এবার জবাবটি মনোযোগ দিয়ে শুনুন। কেউ না চাইলে উপদেশ-জাতীয় কথা আগ বাড়িয়ে বলতে যাবেন না। এ ছাড়া সাধারণ আলাপচারিতায় সীমা মেনে চলুন।
২. বিশেষ আগ্রহ নিয়ে শোনার চর্চা করবেন না: অনেকেই আছে, কেউ কিছু বলতে গেলে অতি আগ্রহে তার দিকে ঝুঁকে পড়ে বক্তব্য শুনতে যায়। এসব আচরণের চর্চা এড়িয়ে চলুন। এ ধরনের মানুষ আসলে কিছুই মনোযোগ দিয়ে শোনে না বলেই ধরে নেওয়া হয়। শুধু আচরণেই আগ্রহীভাব ফুটে ওঠে।
৩. অনুষ্ঠানে ব্যক্তিগত কাজে ব্যস্ততা নয়: যখন একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে আসবেন, তখন মোবাইল ফোন বা ট্যাব নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়বেন না। মানুষের সঙ্গে আন্তরিকতা নিয়ে সরাসরি মিশে যান।
৪. পাওয়ার আগেই কিছু দিন: লেনদেনের বিষয়ে উদারমনা হয়ে উঠুন। পাওয়ার হিসাব করে দেওয়ার পরিকল্পনা করবেন না। কারো কাছ থেকে কিছু পাওয়ার আগে তাকে দিয়ে দিন।
৫. গুরুত্বপূর্ণ ভাব নিয়ে চলবেন না: সবার মধ্যে গুরুত্ব পাবেন ব্যক্তিত্বের আলো ছড়িয়ে, গুরুত্বপূর্ণ ভাব দিয়ে নয়। এমন আচরণে অন্যরা উল্টো বিরক্ত বোধ করবে।
৬. গুরুত্বপূর্ণ মানুষের কাছ থেকে শিখুন: চারপাশের মানুষকে আপনি চেনেন ও জানেন। তাদের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি থাকতে পারেন। তাঁদের যথাযথ মর্যাদা দিন এবং কিছু শেখার চেষ্টা করুন।
৭. প্রশংসা করুন: যারা প্রশংসা পাওয়ার যোগ্য, তাদের প্রশংসা করুন। কেউ আপনার প্রশংসা করলে তার বিপরীতে ধন্যবাদ জানান।
৮. নিজের আচরণ ও কথায় সীমা রাখুন: যে আচরণ ও কথায় আড্ডা জমিয়ে দিয়েছেন, সেখানে একটু সাবধান থাকুন। সীমা অতিক্রম করবেন না। আবার সব সময় গতানুগতিক সৌজন্য দেখানোর প্রয়োজন নেই। নিজের সহজাত আচরণ ও কথা দিয়ে মানুষের মন ভরিয়ে দিন।
৯. অন্যের ব্যর্থতা নিয়ে আলোচনা করবেন না: অনেকেই একে নোংরা আচরণ বলে মনে করেন। বিশেষ করে অন্যের ব্যর্থতা বা খারাপ কিছু নিয়ে আলোচনার শুরু যেন আপনার কারণে না হয়। বরং অন্যের ভালো কিছু তুলে ধরুন।
১০. নিজের ব্যর্থতা তুলে ধরুন: নিজের ব্যর্থতা সবার সামনে তুলে ধরতে অস্বস্তিবোধ করবেন না। উপদেশ-পরামর্শ চাইবেন এবং নিজের মতামত তুলে ধরবেন। মানুষের সঙ্গে আলোচনার সময় খোলামেলা থাকুন।

Print Friendly, PDF & Email