Home আঞ্চলিক জগন্নাথপুরে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগে ছয় মাসের বেতন থেকে এক মাসের বেতন কর্তন

জগন্নাথপুরে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগে ছয় মাসের বেতন থেকে এক মাসের বেতন কর্তন

593
0

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ও অফিস সহকারির বিরুদ্ধে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের স্বেচ্ছাসেবকদের ছয় মাসের বকেয়া বেতন থেকে ১ মাসের বেতন কর্তন করে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা যায়, জগন্নাথপুর উপজেলায় ৩৪ জন স্বেচ্ছাসেবক রয়েছেন। যাদের প্রতি মাসের বেতন ৫৬০০/- টাকা। ৬ মাস অন্তর অন্তর তারা একসাথে ৬ মাসের বেতন পেয়ে থাকেন। গত মাসে ৬ মাসের বকেয়া বেতন তুলতে গেলে স্বেচ্ছাসেবকদের কাছ থেকে অফিস সহকারি নির্মল দেবনাথ উৎকোচ হিসেবে এক মাসের বেতন ৫৬০০/- টাকা কর্তন করে রাখেন। এসময় কেউ কেউ প্রতিবাদ করলে তাদেরকে চাকুরি থেকে বরখাস্তের হুমকি দেয়া হয়।
স্বেচ্ছাসেবক মিতা বেগম জানান, আফিস সহকারি এক মাসের বেতনের টাকা না দেয়ায় আমরা বাধ্য হয়ে ৫ মাসের বেতন ২২৪০০/- টাকা নিয়ে ফিরতে হয়। তিনি জানান, অনেকেই এভাবে এক মাসের টাকা উৎকোচ দিয়েই টাকা নিচ্ছেন। আশারকান্দি ইউনিয়নের স্বেচ্ছাসেবক দিপালী চন্দ্র বলেন, আমরা অনেক কষ্ট করে খেয়ে না খেয়ে প্রতি মাসে দায়িত্ব পালন করি। কিন্তু আমাদের বেতন থেকে এক মাসের টাকা কেটে রাখায় খুব কষ্ট পেয়েছি।
একইভাবে আশারকান্দি ইউনিয়নের সাবিনা বেগম, দিপালী চন্দ্র, আকলিমা, সুলেকা নমসুদ্র, ঝর্ণা রানী বিশ্বাসের নিকট থেকে এক মাসের বেতন কেটে রাখা হয় বলে তারা জানিয়েছেন। এছাড়াও উৎকোচ হিসেবে এক মাসের বেতন দিতে রাজি না হওয়ায় টাকা না নিয়ে ফিরেছেন গীতা রানী, সুপ্রীতি, শিল্পী, অর্চনা, কল্পনা সহ ১০/১২ জন স্বেচ্চাসেবক।
অভিযোগ প্রসঙ্গে অফিস সহকারি মৃদুল দেবনাথ জানান, আমি এবিষয়ে কিছু বলতে পারব না। স্যার (পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা) জানেন।
পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা একরামুল হক বলেন, আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না। অফিস সহকারিকে জিজ্ঞেস করব।
স্বেচ্ছাসেবকদের ৬ মাসের বকেয়া বেতন থেকে এক মাসের টাকা উৎকোচ হিসেবে কেটে রাখার বিষয়ে অফিস সহকারি নির্মল দেবনাথ কে গতকাল সেমাবার জিজ্ঞাসা করলে তিনি রেগে গিয়ে বলেন- আমি বিশ্বনাথের ছেলে, এই বিষয় নিয়ে বেশী ভারাভারি করলে চাদাবাজির মামলায় ফাসিয়ে দেব বলে হুমকি দেন। তিনি বলেন, আমি এরকম অনেক সাংবাদিককে শিক্ষা দিয়েছি। আমি নির্মল দেব কে কেউ কিছু করতে পারবে না।
পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মুজাম্মেল হকের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, স্বেচ্ছাসেবীদের ৬ মাসের বকেয়া বেতন দেয়া হয়েছে। কোনো অনিয়ম হলে আমরা এর বিরেুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।

Previous articleজগন্নাথপুরে ক্যান্সার আক্রান্ত রাকিকে সহযোগীতায় যুব সমাজের বৈঠক
Next articleসাংবাদিকদের নতুন বেতন কাঠামোর প্রয়োজন নেই: অর্থমন্ত্রী