জাল ভোট ব্যালট ছিনতাই ও গোলাগুলির মধ্যে ভোটগ্রহণ চলছে, নিহত ১

0
250

ঢাকা: জাল ভোট, ব্যালট পেপার ছিনতাই ও গোলাগুলির মধ্যে বৃহস্পতিবার দেশের বিভিন্ন স্থানে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সাধারণ, বিভিন্ন পদে উপনির্বাচন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন, পৌরসভা সাধারণ ও বিভিন্ন পদে উপনির্বাচন এবং খুলনা ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ১টি করে সাধারণ ওয়ার্ডের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে সাগরদিঘী ইউনিয়নের একটি কেন্দ্রে ব্যালট বাক্স ছিনতাইকালে পুলিশের গুলিতে একজন নিহত হয়েছে।

সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র পদে উপনির্বাচনে একটি ভোটকেন্দ্রে ব্যাপকভাবে জাল ভোট দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর ফলে দুপুরে অনেক ভোটার ভোট দিতে এসে দেখেন, সেখানে কোনো ব্যালট পেপার আর অবশিষ্ট নেই। অভিযোগের পর অভিযোগ পেয়ে শেষ পর্যন্ত সেই কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ স্থগিত বলে ঘোষণা করতে বাধ্য হন রিটার্নিং কর্মকর্তা।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় ভোট শুরুর পর থেকেই বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে জাল ভোট, ব্যালট পেপার ছিনতাই আর বিশৃঙ্খলার অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছিল। বিএনপি ও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর পক্ষ থেকে এ জন্য আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর সমর্থকদের দোষারোপ করা হচ্ছিল।

এসব অভিযোগের মধ্যেই দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শহরের আরপিননগর কে বি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ব্যালট পেপার না থাকায় ভোট স্থগিত করতে বাধ্য হয়। এর আগে জাল ভোট দেওয়া নিয়ে বিএনপি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের সঙ্গে পুলিশ ও নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তাদের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডার ঘট্না ঘটে। ফলে ওই কেন্দ্রে উত্তেজনা দেখা দেয়।

এ ব্যাপারে পৌরসভা উপনির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা আবদুল মোতালেব সাংবাদিকদের কাছে কোনো কথা বলতে রাজি হননি। ভোটকেন্দ্র কেন স্থগিত করা হয়েছে, তারও কোনো উত্তর দেননি।

এর আগে ভোট শুরুর পর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পৌর শহরের উত্তর আরপিননগর ভোটকেন্দ্র থেকে ব্যালট পেপার ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। সেখান থেকে ব্যালট পেপারের একটি বই ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। এর পরই পাশের কেন্দ্রে ভোট স্থগিতের ঘটনা ঘটল।

পৌরসভার বাসিন্দা ও সাংবাদিক দেওয়ান গিয়াস চৌধুরী তাঁর নিজ কেন্দ্র আরপিননগর কে বি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট দিতে গিয়ে দেখেন, তাঁর ভোট আগেই কে দিয়ে দিয়েছে। তিনি বিষয়টি নিয়ে প্রিসাইডিং কর্মকর্তাকে অভিযোগ করলেও এর কোনো সমাধান মেলেনি। তিনি ভোট না দিয়ে ফিরে আসেন।

এরপর সেখানে ভোট দিতে যান বিএনপির জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নুরু ও ধানের শীষ প্রতীকের তার সমর্থকরা। তারাও গিয়ে দেখেন, তাঁদের ভোট আগেই দেওয়া হয়ে গেছে। পরে তাঁরা প্রিসাইডিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দেন।

‘ব্যালট বই ছিনতাই’

উপনির্বাচনে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পৌর শহরের উত্তর আরপিননগর ভোটকেন্দ্র থেকে ব্যালট পেপার ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে।

উত্তর আরপিননগর ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মো. শফিকুল ইসলাম খন্দকার ব্যালট পেপার ছিনতাইয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘কে বা কারা এসে ৪০ পৃষ্ঠার একটি ব্যালট বই ছিনতাই করে নিয়ে গেছে। বইটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।’

তবে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী দেওয়ান গণিউল সালাদীন অভিযোগ করে বলেছেন, ‘৪০ পৃষ্ঠার নয়, ১০০ পৃষ্ঠার পুরো বইটি ছিনতাই হয়ে গেছে। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নাদের বখতের তিনজন সমর্থক এসে বই ছিনতাই করে নিয়ে গেছেন।’

শহরের কোনো কোনো কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে অতিরিক্ত বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সকাল ৮টা থেকে ভোট শুরু হলেও বৈরী আবহাওয়া থাকায় সকালে ভোটারের উপস্থিতি কম লক্ষ করা গেছে। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটারদের উপস্থিতি বাড়ছে। এরই মধ্যে তিন মেয়রপ্রার্থী নিজ নিজ কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন।

সুনামগঞ্জ পৌরসভার উপনির্বাচনে মোট ভোটারের সংখ্যা ৪২ হাজার ৩২২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২১ হাজার ১৪৯ জন এবং নারী ভোটার ২১ হাজার ১৭৩ জন।

উপনির্বাচনে তিনজন মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আওয়ামী লীগ থেকে নাদের বখত, বিএনপির দেওয়ান সাজাউর রাজা সুমন এবং স্বতন্ত্র প্রাথী হিসেবে দেওয়ান গণিউল সালাদীন লড়াই করছেন।

সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণের জন্য ১১ জন নির্বাহী হাকিম, দুই প্লাটুন বিজিবি, র‌্যাবের তিনটি টিমসহ পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সদস্য দিয়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা আবদুল মোতালেব।

গত ১ ফেব্রুয়ারি সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আয়ূব বখত জগলুল হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ায় এই উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

টাঙ্গাইলে পুলিশের গুলিতে নিহত এক

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে সাগরদিঘী ইউনিয়নের একটি কেন্দ্রে ব্যালট বাক্স ছিনতাইকালে পুলিশের গুলিতে একজন নিহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হওয়ার পরপরই এ ঘটনা ঘটে বলে জানা যাচ্ছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে নিহতের পরিচয় জানা যায়নি।

জেলা পুলিশ সুপার নিহত হওয়ার বিষয়টি জানতে পেরেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন। এছাড়া, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা কেন্দ্রটি স্থগিত করেছেন বলেও জানা গেছে।

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় জানান, প্রায় এক-দেড়শো লোক ব্যালট পেপার ছিনতাই ও সিল দেয়ার জন্য কেন্দ্রে হামলা চালালে প্রিজাইডিং অফিসারের নির্দেশে পুলিশ গুলি চালিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় একজন নিহত হয়েছেন বলে তিনি জানতে পেরেছেন বলে জানান।

এদিকে এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গুপ্তবৃন্দাবন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নামের ওই ভোট কেন্দ্রে বুধবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে সাগরদিঘী ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হেকমত সিকদারের লোকজন ব্যালট পেপারে সিল দিচ্ছে মর্মে খবর ছড়িয়ে পড়লে স্বতন্ত্র প্রার্থী হাবিবুল্লাহ বাহারের সমর্থকরাসহ এলাকাবাসী সেখানে হামলা চালায়।

এসময় স্কুলঘরের ভেতর থেকে হামলাকারীদের প্রতি কয়েক রাউন্ড গুলি ছোঁড়া হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশও গুলি চালায়। এসময় গুলিবিদ্ধ হয়ে আব্দুল মালেক (৪৫) নামের ওই গ্রামের এক ব্যক্তি ঘটনাস্থলেই নিহত হন। কেউ আহত হওয়ার কথা জানা যায়নি।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা তাজুল ইসলামের সাথে বৃহস্পতিবার সকালে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বিষয়টি জানতে পেরে তিনি ঘটনাস্থলে রওনা হয়েছেন। ইতিমধ্যেই নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে ওই ভোট কেন্দ্রটি স্থগিত করা হয়েছে।

আর সারা দেশে একযোগে ১৩১টি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) ও নয়টি পৌরসভাসহ চট্টগ্রাম ও খুলনা সিটি করপোরেশনের দুটি ওয়ার্ড ও একটি উপজেলায় আজ ভোট গ্রহণ হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email