টেন্ডার নিয়ে আ.লীগের ২ এমপি গ্রুপের বোমাবাজি, আহত ৭

0
214

Songorsho 01
যশোর প্রতিনিধি: যশোরে টেন্ডার জমা দেয়াকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের সাবেক এমপি খালেদুর রহমান টিটো ও বর্তমান এমপি কাজী নাবিল আহম্মদ পক্ষ গ্রুপের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলা হয়েছে। এসময় উভয়পক্ষ অন্তত ১৫টি বোমা ফাটিয়েছে। এতে সাবেক এমপি টিটোর ছোট ছেলে হাবিব হাসান বাবুসহ (৩৫) ৭ জন আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শহরের ষষ্ঠিতলাপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
সূত্র মতে, যশোর শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর এমএম কলেজে পৌনে ৮ কোটি টাকা ব্যয়ে দুটি হোস্টেল নির্মাণের জন্য গত ৪ মার্চ দরপত্র আহ্বান করা হয়।
মঙ্গলবার এ টেন্ডার জমাদানের শেষ দিন ছিল। কিন্তু এরআগেই আওয়ামী লীগের বর্তমান এমপি কাজী নাবিল আহম্মদ পক্ষ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন ও সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার সমর্থকদের মধ্যে টেন্ডার নিয়ে সমাঝোতা হয়। তারা নিজেদের মধ্যে কাজ ভাগাভাগি করে নেবে গোপনে এমন সিদ্ধান্ত নেয় বলে অভিযোগ করে অনেকে।
এ পরিস্থিতিতে দুপুরের দিকে যশোর-৩ আসনের সাবেক এমপি খালেদুর রহমান টিটোর তিন ছেলে তাদের বাড়ির নিকটস্থ শিক্ষা প্রকৌশল অফিসে টেন্ডার জমা দিতে যান। এসময় টিটোর ছেলেদের অস্ত্র ঠেঁকিয়ে হুমকি দেয়া হয়। এক পর্যায়ে টিটোর ছোট ছেলে বাবুকে ছুরিকাঘাত করে তার কাছ থেকে টেন্ডারের কাগজ নিয়ে ছিঁড়ে ফেলা হয়। এসময় বোমা হামলার ঘটনাও ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আওয়ামী লীগের সাবেক ও বর্তমান এমপি গ্রুপের বোমা হামলার ঘটনায় পিছু হটে টিটোর সমর্থকরা। এক পর্যায়ে টিটোর বাসভবন লক্ষ্য করে ৩/৪টি বোমা হামলা চালানো হয়। সব মিলে উভয়পক্ষের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলার সময় অন্তত ১৫টি বোমা বিস্ফোরণ ঘটে।
এবিষয়ে সাবেক এমপি খালেদুর রহমান টিটো বলেন, ‘তার ছেলেরা টেন্ডার জমা দিতে গেলে এমপি নাবিল ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদারের লোকজন একত্রে অস্ত্র ঠেঁকায়। ছুরিকাঘাত ও বোমার স্প্রিন্টারে তার ছোট ছেলে হাবিব হাসান বাবুসহ মোট ৭ জন আহত হয়। এসময় তার বাড়িতেও বোমা হামলা করা হয়।
এ বিষয়ে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন বলেন, ‘ সকালে অন্য একটি কাজে গিয়েছিলাম। কিন্তু সেখানে কোনো বোমা হামলা হয়েছে কিনা শুনিনি।
যশোর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিকদার আক্কাস আলী জানান, টেন্ডার জমা দেয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে কেউ হতাহত হয়নি বলে তিনি জানিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email