ডাক্তারদের কর্মস্থলে উপস্থিতি মনিটরিং জোরদার করতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

0
584

ঢাকা: স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, চিকিৎসকদের কর্মস্থলে উপস্থিতি যে কোন মূল্যে নিশ্চিত করতে হবে। এ লক্ষ্যে মনিটরিং ব্যবস্থা আরো জোরদার করার জন্য তিনি সংশ্লিষ্টদের তৎপর হবার জন্য তাগিদ দেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আজ মঙ্গলবার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বিগত ছয় মাসের হাসপাতাল পরিদর্শন সংক্রান্ত প্রতিবেদন পর্যালোচনা সভায় সভাপতির বক্তৃতাকালে এই নির্দেশ প্রদান করেন। দেশে প্রথমবারের মত হাসপাতাল পরিদর্শন প্রতিবেদন নিয়ে এই ধরনের উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠিত হল। সভায় গত ছয় মাসের ১৮ জন কর্মকর্তার ২৩টি প্রতিবেদন নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, অধিকাংশ ক্ষেত্রে গ্রামীণ পর্যায়ে চিকিৎসকদের উপস্থিতি নিশ্চিত করা গেলেও বেশ কিছু স্থানে কর্তব্যের অবহেলার বিষয়টি চিহ্নিত করা হয়েছে। পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পর্যালোচনা করে অনুপস্থিত চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে সুপারিশ অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি বলেন, হাসপাতাল ব্যবস্থাপনার সার্বিক মান এখনো আশানুরূপ পর্যায়ে আনতে না পারা দুঃখজনক। এ জন্য চিকিৎসকদের উপস্থিতি, হাসপাতাল স্থাপনার সংস্কার, যন্ত্রপাতির যথাযথ রক্ষাণাবেক্ষণসহ সকল বিষয়ের প্রতি সর্বোচ্চ নজরদারি বাড়াতে হবে। তিনি সকল প্রতিবেদনের সুপারিশ অনুযায়ী ভবন সংস্কার, হাসপাতালের শয্যা ও পরিবেশ উন্নয়ন এবং যন্ত্রপাতি রক্ষণাবেক্ষণে শীঘ্রই প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস প্রদান করেন।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, মন্ত্রণালয় এবং বিভাগ ও জেলা পর্যায়ের যে সব কর্মকর্তা পরিদর্শনে গাফিলতি করবেন তাঁদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ভবিষ্যতে পরিদর্শনের জন্য উপযুক্ত দক্ষ ব্যক্তিকে নিয়োগ দেওয়া হবে।
সভায় হাসপাতালের সেবার মান বাড়ানোর লক্ষ্যে আগামীতে সকল বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক এবং জেলার সিভিল সার্জনসহ ঊর্র্দ্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। একই সাথে বর্তমানে মন্ত্রণালয়ের সকল কর্মকর্তাদেরকে নির্দিষ্ট স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান সরেজমিতে পরিদর্শন করে প্রতি দুই মাসে একবার প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

এ ছাড়াও ‘হ্যালো ডক্টরস’ কর্মসূচির আওতায় তাঁদেরকে সংশ্লিষ্ট হাসপাতালে ফোন করে চিকিৎসকদের উপস্থিতি মনিটরিং করে প্রতি মাসে দুইবার প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য আদেশ জারী করা হয়েছে। হাসপাতালের যন্ত্রপাতির সুষ্ঠু রক্ষণাবেক্ষণের জন্যেও মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরে একটি পৃথক পরিদর্শন দল বর্তমানে দেশব্যাপী কাজ করছে।
সভায় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ সচিব সৈয়দ মনজ্রুল ইসলাম, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালন অধ্যাপক ডা. দীন মো. নূরুল হক, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক নূর হোসেন তালুকদারসহ মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email