পুলিশই জনগণের প্রধান ভরসা: প্রধানমন্ত্রী

0
206

hasina 11
ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশ পুলিশ হবে দেশ ও জাতির বন্ধু এবং অসহায়দের শেষ আশ্রয়স্থল। পুলিশ এ দেশের শান্তি, নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলার প্রতীক। দেশের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা প্রদান, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা ও মানবাধিকার রক্ষা করা পুলিশের পবিত্র দায়িত্ব।
মঙ্গলবার রাজারবাগ পুলিশ লাইন মাঠে ‘বার্ষিক পুলিশ সপ্তাহ ২০১৫’ এর উদ্বোধনী ভাষণে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, পুলিশই সাধারণ জনগন ও অসহায়দের শেষ ও প্রধান ভরসা। এ কারণে আমরা যখনই সরকারে এসেছি পুলিশকে জনবান্ধব, পেশাদার ও আধুনিক বাহিনীতে পরিণত করতে এর ব্যাপক সংস্কার ও উন্নয়ন করেছি।
তিনি বলেন, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাস ও নাশকতামূলক কর্মকা-, হরতাল ও অবরোধের নামে নিরীহ মানুষ হত্যা, যাত্রীবাহী গাড়িতে আগুন দিয়ে নারী-শিশু হত্যার ঘৃণ্য অপকর্ম প্রতিরোধে বাংলাদেশ পুলিশ অত্যন্ত দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করছে। আমি এজন্য পুলিশ বাহিনীর প্রতিটি সদস্যকে ধন্যবাদ জানাই।
তিনি আরো বলেন, এ দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে যে সকল পুলিশ সদস্য নিহত হয়েছেন, আমি তাদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি। তাদের শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।
পুলিশের আধুনিকায়নে আমরা যে সকল প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম তার অধিকাংশই আমরা ইতোমধ্যে বাস্তবায়ন করেছি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা পুলিশ বিভাগে ৩১ হাজার ৭৪৪টি নতুন পদ সৃষ্টি করেছি। এ সকল পদে লোক নিয়োগ দিয়েছি। আমরা ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ গঠন করেছি। এর ফলে শিল্প প্রতিষ্ঠান বিশেষ করে গার্মেন্টস সেক্টরে শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়েছে। বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে।
বিশেষায়িত পুলিশ ইউনিট যেমন ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই), ট্যুরিস্ট পুলিশ, নৌ পুলিশ এবং ২টি সিকিউরিটি এন্ড প্রটেকশন ব্যাটালিয়ন গঠন করা হয়েছে যার সুফল জনগণ পেতে শুরু করেছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। এর আগে তিনি সকাল ১০টার দিকে অনুষ্ঠানস্থলে এসে পৌঁছান এবং পুলিশ প্যারেড পরিদর্শন করেন। পরে তিনি পদকপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তাদের ব্যাজ পড়িয়ে দেন।

Print Friendly, PDF & Email