বনানীর এফ আর ভবনের ভেতরে কত লাশ?

0
293

ঢাকাঃ বনানীর এফ আর টাওয়ারের আগুনের ঘটনায় ভেতরের উদ্ধার কাজের আপডেট বা লাশের কথা বলছেন না কেউই। শুক্রবার সকাল থেকে ৪ ঘন্টার ব্যবধানে মোট সাত দফায় সাংবাদিকদের ব্রিফিং করা হলেও উদ্ধার কাজের বিষয়ে কেউই কোন তথ্য দিচ্ছেন না।

এ বিষয়ে বারবার প্রশ্ন করা হলে এড়িয়ে যাচ্ছেন সবাই। যদিও ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে সকাল ১০ টায় ব্রিফিং করার কথা ছিল। দুপুর ১ টা পর্যন্ত তারাও কোন ব্রিফিং করেননি।

উৎসুক জনতাদের অনেকেরই প্রশ্ন বেতরে কত লাশ আছে? মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা কোন তথ্য পাচ্ছি না কেন?

এদিকে সকাল থেকে বেশ কয়েক দফায় ব্রিফিং করেছেন পুলিশের গুলশান বিভাগের ডিসি মোস্তাক আহমেদ, পূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, ঢাকা উত্তর সিটি মেয়র আতিকুর রহমান, এলজিআরডি মন্ত্রী তাজুল ইসলাম, ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান।

কিন্তু দফায় দফায় ব্রিফিং করা হলেও এখনো পর্যন্ত ভবনের ভেতরের খবর কেউ দিচ্ছেন না।

পুলিশের গুলশান বিভাগের ডিসি মোস্তাক আহমেদ আজ শুক্রবার সকালে এফআর টাওয়ারের সামনে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। এ সময় তিনি জানান, বিভিন্ন হাসপাতাল থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত ২৪টি লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। আর এ পর্যন্ত মোট ২৫টি লাশ পাওয়া গেছে। বাকি একজনের লাশ ঢাকা মেডিকেলে আছে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার দুপুরে বনানীর ১৭ নম্বর রোডে ২২ তলা এফ আর টাওয়ারের নবম তলায় আগুন লাগে। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিট কাজ করে। এদের সঙ্গে যোগ দেন সেনা, বিমান ও নৌবাহিনীর সদস্যরা। এলাকার সাধারণ মানুষও উদ্ধারকাজে অংশ নেন। উদ্ধারকাজে অংশ নেয় ৫টি হেলিকপ্টার। বালি-পানি দিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা চালানো হয়। হেলিকপ্টারগুলো বাতাস দিয়ে ধোঁয়া সরানোর চেষ্টা করে। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ছয় ঘণ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

সন্ধ্যায় একাংশের আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর ফায়ার সার্ভিসকর্মী ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা ভবনের বিভিন্ন ফ্লোরে প্রবেশ করেন। সেখানে আহত ও নিহতদের উদ্ধার করে নিচে নামিয়ে আনেন।

এদের অনেকেই দগ্ধ হয়েছেন। ধোঁয়ার কারণে অজ্ঞান হয়েও মারা গেছেন কেউ কেউ। আবার জীবিতও অনেককে উদ্ধার করা হয়। ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে গত রাতে নিহতের সংখ্যা ১৯ জন বলে জানানো হয়েছিল।

রাত সোয়া ৯টা পর্যন্ত বলা হয় ১৯ জন মারা যাওয়ার তথ্য দেয়া হয়। কিন্তু হঠাৎ ১১টা ১০ মিনিটে ঘোষণা দেয়া হয় মৃতের সংখ্যা ২৫। এ বিষয়ে সাংবাদিকরা কথা বলতে গেলে তারা দ্রুত মৃতের সংখ্যা গণনা শেষে ফের ঘোষণা দেন মৃত ১৯।

এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ৭৩ জন।

Print Friendly, PDF & Email