বরিশালে দুই স্কুলের ৪০ শিক্ষার্থী অচেতন

0
255

বরিশাল সদর উপজেলার চরকাউয়া ইউনিয়নের নয়নী মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং আজাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী অচেতন হয়ে পড়ে। এরপর স্কুল দুটি ছুটি ঘোষণা করা হলেও বাড়ি যাওয়ার পথে বা বাড়িতে গিয়ে আরও কয়েক শিক্ষার্থী অচেতন হয়ে পড়ে। তাদের বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নয়ানী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল মালেক সাংবাদিকদের বলেন, সোয়া ১০টায় বিদ্যালয় শুরু হয়। সাড়ে ১১টায় অষ্টম শ্রেণির খুকুমনি এবং মীম নামের দুই শিক্ষার্থী অচেতন হয়ে পড়ে। তাঁদের প্রাথমিক সেবা দিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। এর কিছুক্ষণ পর ষষ্ঠ শ্রেণির আরও তিন শিক্ষার্থী শ্রেণিকক্ষে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁদেরও বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়। একপর্যায়ে বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতিকে জানিয়ে বিদ্যালয় ছুটি ঘোষণা করা হয়। পরে শিক্ষার্থীরা বাড়ি যাওয়ার পথে এবং বাড়ি গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে। এরপর অভিভাবক এবং শিক্ষকদের সহযোগিতায় অসুস্থ শিক্ষার্থীদের বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
জানা গেছে, বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগে ৪০ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছে। তাদের প্রত্যেককে স্যালাইন দেওয়া হচ্ছে। তবে হাসপাতালের শয্যা না থাকায় ওয়ার্ডের বারান্দায় মেঝেতে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হয়। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম জানান, প্রথমে নয়ানী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী অচেতন হয়ে পড়ে। এরপর পাশের আজাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী অচেতন হয়ে পড়ে। এই ঘটনায় স্কুল দুটি ছুটি ঘোষণা করা হয়।

এ ব্যাপারে হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক এবং বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ভাস্কর সাহা সাংবাদিকদের বলেন, এটা একধরনের মানসিক রোগ। একজন অচেতন হয়ে পড়েছে দেখে অন্যরাও অচেতন হয়ে পড়ে। সাধারণত ১২ থেকে ১৪ বছর বয়সের ছেলে-মেয়েরা বেশি আক্রান্ত হয়। এটা নিয়ে ভয়ের কোনো কারণ নেই। কয়েক ঘণ্টার মধ্যে এরা স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে।

Print Friendly, PDF & Email