Home আঞ্চলিক ভূয়া ডাক্তারের সাইনবোর্ড লাগিয়ে চিকিৎসার নামে চলছে প্রতারণা

ভূয়া ডাক্তারের সাইনবোর্ড লাগিয়ে চিকিৎসার নামে চলছে প্রতারণা

877
0

কে.এম শহীদুল, স্টাফ রিপোটার্র: সুনামগঞ্জে এক ব্যাক্তি ভূয়া ডাক্তারের নাম ভাঙ্গিয়ে একাধিক ডাক্তারি চেম্বার খুলে সাইনবোর্ড লাগিয়ে ইনজেকশন ছাড়া নাকের ভিতরে পলিপাস, মহিলদের সাদা ¯্রাব, চর্ম যৌন রোগ, অর্শ, গেজ, একশিরা, মহিলাদের নারী নেমে যাওয়া,শ্বাস কষ্ট, হাপানিঁ, এজমা, ডায়াবেটিস, জন্ডিস সহ নাকের ভিতরে পলিপাস দূর করতে এসিড দিয়ে জ্বালিয়ে অপারেশন করছেন বলে বিস্তর অভিযোগ রয়েছে। তার নাম ডাঃ মোঃ সামছুল ইসলাম। তিনি জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার পলাশ ইউনিয়নের গাজীরগাঁও গ্রামের কছুম উদ্দিনের ছেলে। তিনি এই ডাক্তারি পেশায় আসার আগে গত বেশ কয়েকবছর জগন্নাথপুর উপজেলার বাউধরন গ্রামে একটি মসজিদে ইমামতি করতেন বলেও জানা যায়। তিনি সুনামগঞ্জে এসে দুইবছর পূর্বে সুরমা ক্লিনিকের সামনে জোনাকী ফার্ম্মেসী নামে একটি চেম্বার খুলেন।
তিনি দীর্ঘদিন ধরে ভূয়া ডাক্তার সেজে সাইনবোর্ড ও ভিজিটিং কার্ডের মাধ্যমে জেলার শত শত সহজ সরল নারী পূরুষদের চিকিৎসা সেবার নামে অপচিকিৎসা দিয়ে প্রতিজন রোগীর নিকট হতে ৫ থেকে ৬ হাজার টাকা করে ইতিমধ্যে হাতিয়ে নিয়েছেন লাখ লাখ টাকা। ভিজিটিং কার্ডে তার নামের পাশে এল এম এ এফ ঢাকা ব্যবহার করেছেন। এই রোগগুলোর চিকিৎসার জন্য তার যে যে সার্টিফিকেট থাকার কথা সেটি না থাকার পরও সে কিভাবে দীর্ঘদিন ধরে এমন জটিল রোগের চিকিৎসা করে আসছেন এ যেন দেখার কেহ নেই।
স্থানীয় একাধিক ভুক্তভোগী রোগীরা জানান,এই ভূয়া ডাক্তার প্রশাসনের উধর্বতন কর্তৃপক্ষের চোখকে ফাকিঁ দিয়ে জেলা শহরের উকিলপাড়াস্থ শফিক মজ্ঞিলে ভাড়া বাসায় চেম্বার খুলেছেন । চিকিৎসার জন্য তার চেম্বারে প্রতিদিন দূরদূরান্ত থেকে আসা সহজ সরল রোগীরা ভীর করছেন । অনেক রোগীর নাকের ভিতরে মাংস বেড়ে যাওয়ার সমস্যা নিয়ে তার শরনাপন্ন হলে তিনি রোগীর নাকের বাড়তি মাংস দূর করতে এসিড দিয়ে মাংসটুকু জ্বালিয়ে দিচ্ছেন বলে জানা যায়। তিনি জেলা শহরের শফিক মজ্ঞিলে চেম্বার খোলার পাশাপাশি জেলার দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার জয়কলস ইউনিয়নের নোয়াখালী বাজারে ও জামালগঞ্জ উপজেলার জয়নগর বাজারেও আরো দুটি চেম্বার খুলে প্রতিনিয়ত এলাকার শত শত সহজ সরল রোগীদের নিকট হতে প্রতারণার মাধ্যমে অভিনব কৌশলে হাতিয়ে নিচ্ছেন লাখ লাখ টাকা। ফলে অল্পদিনে তিনি আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে যাচ্ছেন। তার এমন অভিনব প্রতারনার ফাদেঁ পড়ে ইতিমধ্যে অনেকেই সর্বশাস্ত হয়ে গেছেন। অনেকেরই অভিযোগ এই প্রতারণ ডাক্তারের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য জেলা প্রশাসনের উধর্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ভূয়া ডাক্তার মোঃ সামছুল ইসলামের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান,আপনার সাথে সাক্ষাতে কথা বলার ইচ্ছে পোষন করেন। তবে তার ঐ সমস্ত রোগের কোন প্রশিক্ষণ কিংবা সার্টিফিকেট নেই বলে জানান। গত দুই বছর ধরে জেলা শহরের শফিক মঞ্জিলে চেম্বার খুলে চিকিৎসা করছেন। পলিতাছাড়াও নোয়াখালী বাজার ও জয়নগর বাজারে তার আরো দুটি চেম্বার রয়েছে। তিনি ডাক্তারী পেশায় আসার আগে জগন্নাথপুর একটি মসজিদের ইমামতি করতেন বলেও জানান।
এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জ সিভিল ডাঃ আশুতোষ জানান, এই বিষয় তো আমার জানা নেই। তবে বিষয়টি খোজ নিয়ে দেখছি যদি এমন হয় তাহলে তদন্ত সাপেক্ষে ঐ ডাক্তারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান।

Previous articleসরকার আবারো ষড়যন্ত্র করে ক্ষমতায় যাওয়ার চক্রান্ত করছে: রিজভী
Next articleপ্রবল বর্ষণে রাস্তা ঠিক রাখা যাচ্ছে না: সেতুমন্ত্রী