মাত্র ৬ বছরেই ধর্ষিতা সাংসদের স্ত্রী

0
221

Dhorson 01
লন্ডন: নগ্ন সেল্ফির পর এবার চমকে ওঠার মতো স্বীকারোক্তি, খবরের শিরোনামে ফের জায়গা করে নিলেন সাংসদ-পত্নী। তার দাবি, শৈশব থেকে একাধিক বার তাকে ধর্ষণ করেন এক পারিবারিক বন্ধু।
সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায় নিজের খোলামেলা ছবি পোস্ট করে এর আগেও বিতর্ক উস্কে দিয়েছেন ক্যারেন ড্যানচুক। ব্রিটিশ লেবার পার্টির সাংসদ সাইমন ড্যানচুকের স্ত্রী, দুই সন্তানের জননী ক্যারেন নিজে অবশ্য তা নিয়ে আদৌ চিন্তিত নন। বরং সেই সময় তিনি জানিয়েছিলেন, নিজের সুন্দর শরীর প্রদর্শনে কোনও অসুবিধা হয় না, উল্টো সেই জনপ্রিয়তা তিনি উপভোগ করেন। কিন্তু এবার সেল্ফিতে নগ্নতা প্রদর্শনের পিছনে অকাট্য কারণ ব্যক্ত করেছেন তিনি।
ক্যারেন জানিয়েছেন, মাত্র ৬ বছর বয়সে তাকে ধর্ষণ করে পরিবারের পরিচিত এক ঘনিষ্ঠজন। তার পর থেকে আরও বেশ কয়েকবার তার শরীর ভোগ করে সেই দুষ্কৃতী। লজ্জায় ও ভয়ে কাউকে সে কথা জানাতে পারেননি ক্যারেন। কিন্তু মনের ভিতরে অসহ্য পাপবোধ ও হীনমন্যতা তাকে কুরে কুরে খেতে থাকে। অবস্থা এমন দাঁড়ায় যে নাগাড়ে ২০ বছর অবসাদ কাটানোর জন্য নিয়মিত ওষুধ খেতে হয় তাকে।
ক্যারেনের দাবি, শৈশবের ভয়ঙ্কর স্মৃতির হাত থেকে পরিত্রাণ পেতে এবং নিজের হারিয়ে যাওয়া মনের জোর ফিরে পেতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সেল্ফি পোস্ট করা শুরু করেন। ছবিতে নিজের আকর্ষণীয় শরীর মেলে ধরতে কুণ্ঠা বোধ করেন না ৩১-এর যুবতী। ক্রমে পাঠকদের প্রশংসা তাকে অনুপ্রেরণা দেয়, বেঁচে থাকার প্রেরণা জোগায়। অতীতের যাবতীয় লজ্জা ঝেড়ে ফেলে জীবন নিয়ে ইচ্ছে মতো আনন্দে মেতে ওঠার রাস্তা দেখিয়েছে সেল্ফি।
ক্যারেন জানিয়েছেন, এ ব্যাপারে তাকে পূর্ণ সমর্থন করেছেন সাংসদ স্বামী সাইমন। বস্তুত তার ভালোবাসা কেন্দ্র করেই নতুন ভাবে বাঁচার ইচ্ছে জাগে ক্যারেন ড্যানচুকের।

Print Friendly, PDF & Email