Home আইন মৃত্যুদণ্ড স্থগিত করতে হিউম্যান রাইটস ওয়াচের আহ্বান

মৃত্যুদণ্ড স্থগিত করতে হিউম্যান রাইটস ওয়াচের আহ্বান

811
0

ঢাকা: যুদ্ধাপরাধে অভিযুক্তদের মৃত্যুদণ্ড স্থগিত করতে আহ্বান জানিয়েছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ। সংস্থাটি তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ আহ্বান জানিয়েছে। এতে বলা হয়, ১৯৭১-এর স্বাধীনতাযুদ্ধে যুদ্ধাপরাধে অভিযুক্ত জামায়াত নেতা মুহাম্মদ কামারুজ্জামানের বিরুদ্ধে ফাঁসির রায় অবিলম্বে স্থগিত করা উচিত। মৃত্যুদণ্ডাদেশের বিরুদ্ধে তার আপিলের করার সুযোগ দেয়া উচিত। সরকার ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার কর্তৃপক্ষকে কামারুজ্জামানের মৃত্যুদন্ড কার্যকর করার প্রস্তুতি নিতে নির্দেশ দিয়েছে এবং আপিলের রায়ের পর তাকে সেখানে স্থানান্তর করা হয়েছে এমন সংবাদে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। রায় কার্যকর আসন্ন বলেই এতে ইঙ্গিত মেলে। এখনও তার আইনজীবী পূর্ণাঙ্গ চূড়ান্ত রায় হাতে পাননি যা তিরিশ দিনের মধ্যে রায় পর্যালোচনার করার পিটিশন দাখিল করতে প্রয়োজন এবং যে কোন মৃত্যুদন্ড মামলায় এটা সাধারণ প্রক্রিয়া। সরকারি কর্মকর্তারা এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন পূর্ণাঙ্গ রায় ইস্যু হওয়ার আগেই মৃত্যুদন্ড কার্যকর হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে, যা মৃত্যুদন্ড মামলায় ওই নীতিমালার বিরুদ্ধে। হিউম্যান রাইটস ওয়াচের এশিয়া বিষয়ক পরিচালক ব্রাড অ্যাডামস বলেন, যে কোন ক্ষেত্রে মৃত্যুদন্ডের বিরুদ্ধে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ। এটা অপরিবর্তনযোগ্য, অবমাননাকর এবং নির্মম শাস্তি।
তিনি আরও বলেন, এটা বিশেষ করে সমস্যার কারণ যখন বিচারপ্রক্রিয়া সুষ্ঠু বিচারিক মানদন্ড অনুযায়ী হয়নি এবং যেখানে স্বতন্ত্র আদালতের মাধ্যমে মৃতুদন্ডাদেশের বিরুদ্ধে আপিলের অধিকারের অনুমোদন নেই। ‘প্রেসিডেন্সিয়াল পারডন’ (প্রেসিডেন্টের সাধারণ ক্ষমা) আপাতদৃষ্টিতে সম্ভব হলেও, এ ধরনের মামলায় এর সম্ভাবনা ক্ষীণ।
ব্রাড অ্যাডামস বলেন, ১৯৭১-এ যে নির্মম অপরাধ সংঘটিত হয়েছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বরাবরই তার ন্যায়বিচার ও জবাবদিহিতার সমর্থন দিয়েছে। কিন্তু একই সঙ্গে আমরা বারবার বলেছি যে, ভুক্তোভুগীদের জন্য সঠিক ন্যায়বিচারের প্রতিশ্রুতি রক্ষার স্বার্থে এসব বিচার প্রক্রিয়াকে অবশ্যই আন্তর্জাতিক মানদন্ড অনুসারে হতে হবে।

Previous articleপাঁচ সচিব পদে রদবদল
Next articleরাজধানীতে জামায়াতের বিক্ষোভ মিছিল