ময়মনসিংহে আ.লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ: নিহত ১, আহত ২০

0
261

kill-e1412352844449
ময়মনসিংহ: নান্দাইল পৌর আওয়ামী লীগের কর্মীসভায় দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আবুল মুনসুর ভূইয়া নামের ১ জন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন পুলিশসহ অন্তত ২০ জন। এ ঘটনায় ওই এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন। নিহত মনসুর ভূইয়া নান্দাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম ভূইয়ার ভাই।
বৃহস্পতিবার রাত সাতটার দিকে দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের সময় গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসাধীন অব্স্থায় তার মৃত্যু হয়। এর আগে উপজেলার সাবরেজিস্ট্রি অফিসের সামনে কর্মীসভাকে কেন্দ্র করে উপজেলা আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ, ধাওয়-পাল্টাধাওয়া, গুলি, ককটেল বিস্ফোরণ ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এতে পুলিশসহ উভয় পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হয়। পরে আহতদের নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর মধ্যে নিহত আবুল মুনসুর ভূইয়ার অবস্থা আশঙ্কাজনক ছিলো।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, নান্দাইলের বর্তমান সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আবেদিন তুহিনের সঙ্গে সাবেক সাংসদ মেজর জেনারেল (অব.) আব্দুস সালামের দীর্ঘদিন ধরে রাজনৈতিক বিরোধ চলছিল।
বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার সাবরেজিস্ট্রি অফিসের সামনে নান্দাইল পৌর আওয়ামী লীগের কর্মীসম্মেলন ডাকে সাবেক এমপি সালাম গ্রুপ। সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজের বিরতির পর আবার সম্মেলন শুরু হলে বর্তমান এমপি তুহিনকে নিয়ে আক্রমনাত্মক বক্তব্য দেয়া হয়। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পরে উভয় গ্রুপই দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় বেশ কয়েকটি গুলি ও ককটেলের ফাটায় তারা। এতে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে। ঘটনাস্থলে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
এ ব্যাপারে নান্দাইল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম বাংলামেইলকে বলেন,‘পৌর আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে দলের কর্মীসভা চলছিল। এ সময় গুলির মতো কিছু শব্দ পাই। তবে এগুলো গুলির শব্দ কিনা যাচাই ছাড়া বলা যাবে না।’

Print Friendly, PDF & Email