Home জাতীয় সংক্ষিপ্ত তালিকার নাম গণমাধ্যমে প্রকাশ করা উচিত হবে না: ওবায়দুল কাদের

সংক্ষিপ্ত তালিকার নাম গণমাধ্যমে প্রকাশ করা উচিত হবে না: ওবায়দুল কাদের

280
0

ঢাকা: নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনে বাছাই করা ২০ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকার নাম রাষ্ট্রপতির কাছে সুপারিশ করার আগে গণমাধ্যমে প্রকাশ করা উচিত হবে না বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তবে বিষয়টি গোপন থাকবে কি-না সে বিষয়ে সন্দেহও প্রকাশ করেন তিনি।
সড়ক ভবনে সড়ক ও জনপথ প্রকৌশলী সমিতির বার্ষিক সম্মেলন ২০১৭ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেয়ার একপর্যায়ে সাংবাদিকরা সংক্ষিপ্ত তালিকার নাম প্রকাশ হবে কি-না এ বিষয়ে চিরকুট পাঠানোর পর তিনি এ কথা বলেন।
ওবায়দুল কাদের বলেন, সার্চ কমিটি রাষ্ট্রপতির কাছে কোন কোন নাম সুপারিশ করবেন সেটা আমাদের এখতিয়ারে নেই। প্রস্তাবিত নামগুলো মিডিয়াতে যাবে কি-না তা সার্চ কমিটি ও রাষ্ট্রপতি জানেন। মিডিয়ায় এ নাম যাবে কি যাবে না সেটা বলার এখতিয়ার আমার ও আওয়ামী লীগের নেই। তারা প্রস্তাবিত নাম মিডিয়ায় প্রকাশ করবেন কী করবেন না তাদের বিষয়।
তবে নামগুলো গণমাধ্যমে আসতে পারে সন্দেহ প্রকাশ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, আমাদের দেশে বাস্তবতাটা এই যে ১০ জন মিলে সভা করি, বলা থাকে নিয়ম অনুযায়ী মিডিয়ায় যাওয়ার কথা নয়। তারপরও কি গোপন থাকে? কে ব্যক্তিগতভাবে ফাঁস করে দিবে, ওখানে যারা আছেন তাদের মধ্যে যে কোনো একজন, আমি জানি তারা খুব দায়িত্বশীল ব্যক্তি।
ওবায়দুল কাদের বলেন, এ ধরণের বিষয়গুলো আগেভাগে প্রকাশ করা উচিত নয়। রাষ্ট্রপতি ইলেকশন কমিশন গঠন করবেন এটা প্রকাশ্য দিবালোকের মত সত্য হবে। কিন্তু তার আগে এ বিষয়টির সুপারিশ রাষ্ট্রপতির কাছে যাওয়ার আগে মিডিয়ায় প্রকাশ করা ঠিক না। তবে গোপন থাকবে এটার গ্যারান্টিও দিতে পারি না।
নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনে রাজনৈতিক দলগুলোর প্রস্তাবিত নাম বাছাই করে ২০ জনের একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা করেছে সার্চ কমিটি, যার মধ্যে ১০ জনের নাম শেষ পর্যন্ত রাষ্ট্রপতির কাছে সুপারিশ করা হবে।
গত মঙ্গলবার মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের জানান, ‘দলগুলোর কাছ থেকে ১২০-১২৫টির মতো নাম জমা পড়েছে। তার মধ্যে থেকে সততা, দক্ষতা, অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে সার্চ কমিটি আজ ২০ জনের একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা করেছে।’
তবে এই ২০ জনের মধ্যে কারা আছেন, সে তথ্য প্রকাশ করেননি মন্ত্রিপরিষদ সচিব। সার্চ কমিটি স্ব-উদ্যোগে কিছু নাম প্রস্তাব করতে পারে বলেও আভাস দিয়েছেন তিনি।
আরও যাচাই-বাছাইয়ের পর ২০ জনের তালিকা থেকে ১০ জনকে চূড়ান্ত করবে সার্চ কমিটি। সেই ১০ জনের নাম প্রস্তাব করা হবে রাষ্ট্রপতির কাছে।
সার্চ কমিটির ওই সুপারিশের মধ্য থেকে একজন প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ অন্যূন পাঁচ সদস্যে নতুন নির্বাচন কমিশন নিয়োগ দেবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।
কাজী রকিব উদ্দিন আহমদ নেতৃত্বাধীন বর্তমান নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষে ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি দায়িত্ব নেবে নতুন কমিশন। তাদের অধীনেই ২০১৯ সালের শুরুতে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে।
প্রকৌশলী সমিতির বার্ষিক সম্মেলনে প্রকৌশলীরা বিভিন্ন দাবি-দাওয়া তুলে ধরেন মন্ত্রীর কাছে।
ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কিছু কিছু প্রকৌশলী কমিটমেন্ট নিয়ে কাজ করে, আবার কিছু কিছু আছে স্টেশনে থাকে না। কাজ থাকলে ছুটি নেন, ফাঁকি দিবেন কেন?’
সড়ক ও জনপথ প্রকৌশলী সমিতির সভাপতি এ কিউ এম একরাম উল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত স্থায়ী কমিটির সভাপতি একাব্বর হোসেন, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এম এ এন ছিদ্দিক, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী ইবনে আলম হাসানসহ অন্যরা।

Previous articleএসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু
Next articleজগন্নাথপুরে জমে উঠেছে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন