সরকারের অত্যাচারে বিএনপি আরো শক্তিশালী হচ্ছে: রুমিন ফারহানা

0
420

বিএনপি ১০ বছর ধরে ভয়াবহ নির্যাতনের মধ্যে রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ও মহিলা আসনের সাংসদ ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা। তিনি বলেন, ‘সরকারের নানামুখী অত্যাচারের মুখে বিএনপি দিন দিন আরো বেশি শক্তিশালী হচ্ছে।’

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে রাজধানী থেকে নিজ গ্রামের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলায় যাওয়ার পথে আশুগঞ্জে হোটেল উজানভাটিতে যাত্রাবিরতিকালে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন রুমিন ফারহানা।

এর আগে ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানাকে ভৈরব উপজেলার টোল প্লাজা থেকে একটি মোটরসাইকেল শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা আশুগঞ্জে নিয়ে যান।

এ সময় বিএনপির এই নেত্রী বলেন, ‘আমরা ১০ বছর ধরে ভয়াবহ নির্যাতনের মধ্যে আছি। আমাদের শীর্ষ থেকে একেবারে তৃণমূল পর্যন্ত এমন কোনো কর্মী নাই, এমন কোনো নেতা নাই, যার বিরুদ্ধে মামলা নাই। আমি আমার বিরুদ্ধে ২৫টি মামলা নিয়ে ঘুরি।’

রুমিন ফারহানা বলেন, ‘আমার ভাইরা আজকে আসছে, প্রত্যেকে মাথায় মামলার হুলিয়া নিয়ে আমাকে দেখতে আসছে। এই প্রাণের টান কিন্তু শত অত্যাচারেও ভেঙে পড়ে নাই। এই প্রাণের টান টাকা দিয়ে কেনা যায় না। সুতরাং বিএনপি যেমন শক্তিশালী ছিল, আমি মনে করি, সরকারের নানা রকম জুলুম-নির্যাতনে বিএনপি প্রতিদিন আরো বেশি শক্তিশালী হচ্ছে। কারণ, মজলুমের এক ধরনের একাত্মতা থাকে। মজলুম একসঙ্গে থাকে। কারণ, তারা জানে, তারা শোষিত, তারা নির্যাতিত। নির্যাতিত মানুষের যে ঐক্য আজকে বিএনপিতে, সেই ঐক্য আমি দেখি। এ ঐক্যই বিএনপিকে জনগণের কাছে আরো গ্রহণযোগ্য করে তুলবে এবং ভবিষ্যতে বিএনপিকে দেশের জনগণ ক্ষমতায় বসাবে।’

মহিলা আসনের এই সাংসদ বলেন, ‘আমি সংসদে একটি মাত্র অধিবেশন পার করলাম। আমি আমার নেতাকর্মীর কথা, আমি আমার দলের চেয়ারপারসন তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কথা, আগামীর রাষ্ট্রনায়ক তারেক রহমানের ওপর যে নির্যাতন হয়েছে, সেই কথা এবং আপামর জনসাধারণ আজকে যে কষ্টে আছে, তার সব কথা আমি সংসদে বলেছি এবং আগামীতেও আমি তুলে ধরব। সরকারের অত্যাচার-নির্যাতনের ফলে জনগণের মধ্যে একটি ক্ষোভ এবং চাপা কষ্ট তৈরি হয়েছে। এই ক্ষোভের বিস্ফোরণ যেদিন ঘটবে, সেদিন সরকার আর টিকে থাকতে পারবে না।’

এ সময় আশুগঞ্জে হোটেল উজানভাটিতে রুমিন ফারহানাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। পরে হোটেল উজানভাটির হলরুমে নেতাকর্মীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় অংশ নেন তিনি।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আশুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি ডা. ইদ্রিস হাসান, যুগ্ম সম্পাদক নূর আলম, প্রচার সম্পাদক মো. হাববিুর রহমান, আশুগঞ্জ উপজেলা যুবদলের সদ্য বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি মো. ফায়জুর রহমান, যুবদল নেতা রেজোয়ান রাসেল, মো. জসিম উদ্দিন, ছাত্রদল নেতা মো. তোফাজ্জল, হিমেল, মো. শামীম, রিফাতুল ইসলাম প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email