সরকার এখন সুন্দরবনকে ‘ক্রসফায়ারে’ দিতে চায়: সৈয়দ আবুল মকসুদ

0
487

ঢাকা: বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেছেন, সরকার ১০ বছরে শত শত মানুষকে ক্রসফায়ারে হত্যা করেছে, এখন সুন্দরবনকে ক্রসফায়ারে দিতে চায়। বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল সুন্দরবনের কোলঘেঁষে বাগেরহাটের রামপালে ভারতের সহায়তায় কয়লা ভিত্তিক বিদ্যৎ কেন্দ্র নির্মাণের বিরোধিতা করে তিনি এ মন্তব্য করেন।  পরিবেশবাদীরা এ প্রকল্পের ঘোর বিরোধিতা করলেও সরকার বলছে, এতে পরিবেশের কোনো ক্ষতি হবে না।

শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সুন্দরবন রক্ষায় জাতীয় কনভেনশনে আবুল মকসুদ সরকারকে হুঁশিয়ারি করে বলেন, মানুষের ক্রসফায়ার ঠেকাতে পারিনি। কিন্তু সুন্দরবনকে ক্রসফায়ার দিতে চাইলে তা যে কোনো মূ্ল্যে প্রতিহত করা হবে।  এসময় তিনি সুন্দরবন ধ্বংস না করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা কমিটি এ কনভেনশনের আয়োজন করেন।

রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের সিদ্ধান্তকে রাষ্ট্রঘাতী উল্লেখ করে আবুল মকসুদ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে অব্যাহতভাবে আমরা এই প্রকল্পের বিরোধিতা করে আসছি। কিন্তু সরকার আমাদের কথায় কর্ণপাত করছে না।

তিনি বলেন, আমরা সরকারের কোনো উন্নয়ন কাজের বিরোধিতা করি না। যে প্রকল্প গোটা জাতির সর্বনাশ করে তার বিরোধিতা করে থাকি।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি প্রকৌশলী শেখ মোহাম্মদ শহিদুল হকের সভাপতিত্বে কনভেনশনে আরো বক্তব্য রাখেন ওয়াকার্স পার্টির নেতা বিমল বিশ্বাস, গণসংহতি আন্দোলনের  প্রধান সমন্বয়কারী জুনায়েদ সাকী,  গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্যফেডারেশন  সভাপতি মোশরেফা মিশু, অর্থনীতিবিদ এম এম আকাশ, তেল-গ্যাস রক্ষা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আনু মোহাম্মদ প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email