৩২৮ রানে হার বাংলাদেশের

0
238

bangladesh cricket_173480
স্পোর্টস ডেস্ক: শেষ পর্যন্ত বড় হারই দেখলো টাইগাররা। ঢাকা টেস্টের দেড় দিনের খেলা বাকি রেখে বাংলাদেশ হার দেখলো ৩২৮ রানে। এতে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজে ১-০তে জয় কুড়ালো সফরকারী পাকিস্তান। মিরপুর শেরে বাংলা মাঠে শনিবার ম্যাচের চতুর্থ দিন চা বিরতির আগে ২২১/৯ সংগ্রহ নিয়ে শেষ হয় বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংস। ইনজুরির কারণে দ্বিতীয় ইনিংসেও ব্যাট করতে পারেননি শাহদাত হোসেন। বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসে একমাত্র অর্ধশতকটি ওয়ান ডাউন ব্যাটসম্যান মুমিনুল হকের। নিজের উইকেট দেয়ার আগে মুমিনুল করেন ৬৮ রান। শেষের দিকে ব্যাট হাতে ৩৯ রানের দৃঢ়তা দেখান আট নম্বরে ব্যাট হাতে শুভাগত হোম চৌধুরী। তাইজুল ইসলাম ১০ ও মোহাম্দ শহিদ করেন ১৪ রান। পাকিস্তানের বল হাতে দ্বিতীয় ইনিংসেও সফল ইয়াসির শাহ। ২১ ওভারের স্পেলে ৭৩ রানে চার উইকেট নেন এ লেগ স্পিনার । ঢাকা টেস্টের ম্যান অব দ্য ম্যাচ এবং প্লেয়ার অব সিরিজ পুরস্কার উঠেছে পাকিস্তানি টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান আজহার আলীর হাতে।
চতুর্থ দিন মধ্যাহ্ন বিরতির আগেই ১১৯ রানে ৫টি উইকেট হারায় বাংলাদেশ। বাংলাদেশের জয়ের জন্য প্রয়োজন তখনও ৪১৬ রান। ঢাকা টেস্টের তৃতীয়দিনই বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচের ভাগ্য অনেকটা নির্ধারিত হয়ে গিয়েছিল। পাকিস্তানের দ্বিতীয় ইনিংসে ছুড়ে দেয়া ৫৫০ রানের টার্গেট তাড়া করে জয় পেতে বিশ্ব রেকর্ড গড়তে হতো বাংলাদেশকে। ১৩৮ বছরের টেস্ট ইতিহাসে এত রান তাড়া করে জয়ের নজির নেই। তৃতীয় দিন ১৪ ওভার বাকি থাকতে মাঠে নেমে ছিল বাংলাদেশ। ইমরুল কায়েসকে ১৫ রানে হারিয়ে স্কোর বোর্ডে যোগ করেছিল ৬৩ রান। তামিম ৩২ ও মুমিনুল ১৫ রানে অপরাজিত থেকে চতুর্থ দিন শুরু করে। কিন্তু ৪২ রান করে তামিম আউট হলে মড়ক লাগে বাংলাদেশ ইনিংসে। মধ্যহ্ন বিরতি পর্যন্ত ৫৬ রান যোগ করেই চারটি উইকেট হারায় টাইগারা। তামিমের পর মাহমুদুল্লাহ ২, সাকিব ১৩ ও অধিনায়ক মুশফিকর রহীম শূণ্য রানে সাজঘরে ফেরেন। কিন্তু ৫২ রান করে এখনও অপরাজিত আছেন মুমিনুল হক সৌরভ। তার সঙ্গে সৌম্য সরকার ১ রান করে অপরাজিত আছেন।

Print Friendly, PDF & Email