ছাত্রলীগের অপকর্মের সহযোগী ‘দলদাস’ প্রশাসন: ভিপি নুর

0
210
Nurul Nuru DU

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনের সব ধরনের অপকর্মের সহযোগী হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ভূমিকা পালন করছে বলে মন্তব্য করেছেন ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর। সোমবার আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে আয়োজিত সমাবেশ থেকে এই হুশিয়ার দেন তিনি। বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের উদ্যোগে এ বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

নুর বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে শিক্ষার্থীরা ছাত্রলীগের হাতে নানা ধরনের নিপীড়ন-নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। আর দলকানা প্রশাসন ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনের এ সব অপকর্মের অন্যতম সহযোগী হিসেবে ভূমিকা পালন করছে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে প্রত্যেকটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে দলদাস প্রশাসনের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ে একটা ভয়ার্ত পরিবেশ কায়েম করা হয়েছে। যেখানে ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠনের বাইরে অন্যরা কথা বলতে ভয় পাচ্ছেন। প্রতিবাদ করতে ভয় পাচ্ছেন।

ডাকসু ভিপি বলেন, ছাত্রলীগ সাধারণ শিক্ষার্থীদের হলে জিম্মি করে রেখেছে। প্রতিটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে যে হল রয়েছে সেখানে নিয়ম অনুযায়ী প্রশাসনের সিট দেয়া কথা। কিন্তু আজ যদি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দিকে তাকান, এই বিশ্ববিদ্যালয়ের মেয়েদের হলগুলোতে দুইভাবে সিট দেয়া হয়, প্রশাসনিক ও রাজনৈতিকভাবে।

‘ছেলেদের বিজয় একাত্তর হল ব্যতীত অন্য হলগুলোতে ছাত্রলীগ শিক্ষার্থীদের হলে থাকতে দিয়ে তাদের দিয়ে প্রোগ্রাম মিছিল-মিটিং করায়। যদি কেউ মিছিল-মিটিং না করে তা হলে তাদের হলে থাকতে দেয় না।’

তিনি বলেন, যখন নিরাপদ সড়ক আন্দোলন হয়েছিল তখন বুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের একজন শিক্ষার্থীকে কম্পিউটার চিপসের বক্স রাখার দায়ে তখনকার ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী বুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে নিয়ে ওই ছেলেকে বেদম প্রহার করে পুলিশের তুলে দিয়েছিলেন।

‘ঢাবির এফ রহমানের হলে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আবু বকর নামের এক শিক্ষার্থী নিহত হয়েছিলেন। এসএম হলের শিক্ষার্থী হাফিজুর রহমান মোল্লা ছাত্রলীগের নির্যাতনের শিকার হয়ে মারা গেছেন। কিন্তু এই বিশ্ববিদ্যালয়ের দলদাস প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

Print Friendly, PDF & Email