ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র চবি ক্যাম্পাস

0
599

চট্টগ্রাম : আধিপত্য বিস্তার নিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে ফের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ৪০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। গত বুধবার মধ্যরাতে চবি ছাত্রলীগের শাটল ট্রেনের বগিভিত্তিক সংগঠন ‘বিজয়’ ও ‘সিক্সটি নাইন’ পক্ষের মধ্যে আলাওল ও এ এফ রহমান হলের সামনে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষ চলাকালে ছয়টি ককটেল বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়। এ সময় সিক্সটি নাইন পক্ষের কর্মীরা এ এফ রহমান হলে ঢুকে বিজয় পক্ষের কর্মীদের ধাওয়া দিয়ে বের করে অর্ধশতাধিক কক্ষে ভাঙচুর চালান। এ ছাড়া পাঁচটি মোটরসাইকেল ভাঙচুরসহ লুটপাটেরও অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহতরা বিশ্ববিদ্যালয় মেডিক্যাল সেন্টার ও চট্টগ্রাম মেডিক্যাল হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন।

সংঘর্ষের ঘণ্টাখানেক পর পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে উভয় পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ সময় উভয় পক্ষের ৫৭ নেতাকর্মীকে আটক করে পুলিশ। পরে সকালে যাচাই-বাছাই শেষে সাতজনকে রেখে অন্যদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

সংঘর্ষে জড়ানো বিবদমান দুটি পক্ষের মধ্যে ‘সিক্সটি নাইন’ পক্ষটি চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছিরের অনুসারী ও ‘বিজয়’ পক্ষ শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান নওফেলের অনুসারী। সিক্সটি নাইনের নেতৃত্বে আছেন শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন টিপু ও বিজয়ের নেতৃত্বে আছেন সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ ইলিয়াছ।

এর আগে গত বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সোহরাওয়ার্দী, শাহ আমানত ও শাহজালাল হলের সামনে দফায় দফায় এ দুটি পক্ষ সংঘর্ষে জড়ায়। এতে পাঁচজন আহত হন এবং পুলিশ চারজনকে আটক করে। এ নিয়ে গত রবিবার থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ছাত্রলীগের বিভিন্ন পক্ষের মধ্যে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে কমপক্ষে ১০ বারের বেশি ধাওয়াধাওয়ি ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটল। এর পর থেকে গতকাল রাত পর্যন্ত থেমে থেমে ক্যাম্পাসে উত্তেজনা বিরাজ করছে।