জগন্নাথপুরে জাপার সম্মেলন ও প্রতিবাদ সভা

0
137

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি: জগন্নাথপুরে জাতীয় পার্টির বিভক্ত দুইটি গ্রুপ পৃথক স্থানে পৃথকভাবে দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ও প্রতিবাদসভা করেছেন। শনিবার দুপুরে স্থানীয় আব্দুস সামাদ আজাদ অডিটরিয়ামে একই সময়ে পৃথক দুইটি গ্রুপ সম্মেলনের আহবান করায় জগন্নাথপুর উপজেলা প্রশাসন কোন গ্রুপকেই অডিটরিয়াম বরাদ্দ না দেয়ায় সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির উদ্যোগে স্থানীয় একটি কমিউনিটি সেন্টারে দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ও আরেক গ্রুপের উদ্যোগে জগন্নাথপুর বাজারে পৃথক প্রতিবাদসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
জগন্নাথপুর জাতীয় পার্টির সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক পৌর কাউন্সিলর খলিলুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব জহিরুল ইসলাম লাল মিয়া এবং জাপা নেতা আলী আফছারের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা জাপার সাবেক সভাপতি ও সাবেক এমপি অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ মাস্টার। প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা জাপার মোঃ আলী খুশনুর।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, জেলা জাপার সাবেক সাধারণ সম্পাদক আ এম ওয়াহিদ কনা মিয়া, সাবেক যুগ্ম-সম্পাদক এসএম ফারুক আহমদ, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুর রহমান শামসু, সাবেক প্রচার সম্পাদক গোলাম হোসেন অভি, জাপা নেতা রশিদ আহমদ। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জাপা নেতা নুরুল ইসলাম মাস্টার, আবুল কাহার, দবির মিয়া, আবুল বশর, আকবর আলী, ছালিক মিয়া, রফিক মিয়া প্রমূখ। সভায় প্রধান অতিথি জেলা জাপার সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ মাস্টার সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক পৌর কাউন্সিলর খলিলুর রহমান খলিলকে সভাপতি, সদস্য সচিব জহিরুল ইসলাম লাল মিয়াকে সাধারণ সম্পাদক ও দবির মিয়াকে সাংগঠনিক সম্পাদক পদে নাম ঘোষণা করেন। সেই সাথে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে উপজেলার পাটলি ইউনিয়ন পরিষদের সম্ভাব্য দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে দবির মিয়ার নাম ঘোষণা করা হয়।
এদিকে-অবাঞ্ছিত সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সম্মেলনে নব-ঘোষিত কমিটিকে প্রত্যাখান করে জগন্নাথপুর উপজেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ডা.আছকির খানের সভাপতিত্বে ও জাপা নেতা ডা. নুর আলীর পরিচালনায় জগন্নাথপুর বাজারে পৃথক প্রতিবাদসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন, জাপা নেতা ফিরোজ রানা, হারুন মিয়া, রফিক মিয়া, দুদু মিয়া, সফাত আলী, আমিনুল ইসলাম বুলবুল, ফারুক মিয়া, ছালিক মিয়া, মোস্তফা আলী, সাইফুল আলম আহার, ছানু মিয়া, নজরুল ইসলাম, তৈমুছ খান, বাবুল মিয়া, আশিক আলী, হামিদ মিয়া, হাফিজুর রহমান, আব্দাল মিয়া, শফিক মিয়া, আব্দুল মতিন, আব্দুস শহীদ মধু মিয়া, আব্দুল খালিক পুলিশ, এরশাদ মিয়া প্রমূখ। এ সময় পার্টির নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভায় বক্তারা বলেন, আমরা পল্লী বন্ধু হোসেইন মুহাম্মদ এরশাদের রাজনীতি করি, অন্য কারো নয়। তৃণমুল পর্যায়ের ত্যাগী নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে কারো দেয়া পকেট কমিটি আমরা মানি না। তাই নব-ঘোষিত কমিটিকে আমরা প্রত্যাখান করছি।

Print Friendly, PDF & Email