জগন্নাথপুর নির্বাচনে টাকার খেলা চলবে না: ইউএনও হুমায়ূন কবির

0
143

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি: নিজে আইন মানুন, অন্যকে মানতে বলুন, আইনের মানুষে পরিণত হোন। এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে জগন্নাথপুরে নির্বাচনের আচরণবিধি লঙ্ঘন সংক্রান্ত অবহিত করণ শীর্ষক আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার দুপুরে জগন্নাথপুর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে স্থানীয় আব্দুস সামাদ আজাদ অডিটরিয়ামে জগন্নাথপুর উপজেলার ৭ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশ গ্রহনকারী সকল চেয়ারম্যান, নারী সদস্য ও পুরুষ সদস্য প্রার্থীদের নিয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ হুমায়ূন কবিরের সভাপতিত্বে ও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) বিশ্বজিত কুমার পালের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মুক্তাদির আহমদ মুক্তা, জগন্নাথপুর থানার ওসি মো.মুরসালিন, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা গোলাম সারোয়ার, রিটার্নিং অফিসার রফিকুল ইসলাম, আসাদুজ্জামান, জয়নাল আবেদীন, মখলিছুর রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু। সভায় মুক্ত আলোচনায় বক্তব্য রাখেন, বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী আলহাজ্ব মজলুল হক, আইয়ূব খান, দবির মিয়া, আংগুর মিয়া, হারুনুর রশীদ, আব্দুর রব, হিরা মিয়া, দ্বীপক কান্তি দে দিপাল, সদস্য প্রার্থী রিক্তা রাণী দাস, আবুল হাশিম ডালিম, আবু তাহের, আলিম উদ্দিন, সাব্বির আহমদ, জয়নাল আবেদীন, খালেদ আহমদ, সাংবাদিক শংকর রায়, আব্দুল হাই, জগন্নাথপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো.শাহজাহান মিয়া প্রমূখ। এ সময় সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, নারী সদস্য ও সদস্য প্রার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভায় নির্বাচনের আচরণবিধি লঙ্ঘন সংক্রান্ত বিষয়ে ব্যাপকভাবে প্রার্থীদের অবহিত করা হয়। এ সময় সভাপতির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাচনের সমন্বয়কারী মোহাম্মদ হুমায়ূন কবির বলেন, নির্বাচন নিয়ে আমাদের উপর সরকারের কোন প্রভাব নেই। আমরা নির্বাচন কমিশনের অধীনে নিরপেক্ষভাবে কাজ করছি। আমরা একটি অবাধ-সুষ্ট নির্বাচন উপহার দিতে চাই। এ জন্য সব প্রার্থীসহ সকলের সহযোগিতা কমানা করছি। নির্বাচনটি শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্নের লক্ষে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে সব ধরণের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। তবে জেনে-শুনে কোন প্রার্থী নির্বাচনের আচরণবিধি করলে, তাঁর বিরুদ্ধে জরিমানাসহ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়া নির্বাচনে কোন টাকার খেলা চলবে না। এ ধরণের কোন অভিযোগ প্রমাণিত হলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে প্রার্থীদের সতর্ক করা হয়। সেই সাথে কোন প্রার্থী তাঁর প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থীর বিরুদ্ধে কোন প্রকার উস্কানিমূলক বক্তব্য দিতে পারবেন না। তা হলেও শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি নির্বাচনে সব ধরণের আচরণবিধি লঙ্ঘন থেকে বিরত থাকার জন্য সকল প্রার্থীদের প্রতি আহবান জানান।

Print Friendly, PDF & Email