জামালপুরে পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

0
205

জামালপুর: জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলায় সোমবার ভোররাতে পুলিশের সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। নিহত ব্যক্তির নাম শিপন (২৮)। নিহত শিপন শেরপুর জেলা সদরের মুন্সিরচর এলাকার জামাল উদ্দিনের ছেলে। সে ১৪ মামলার আসামি ও মাদক ব্যবসায়ী বলে জানিয়েছে পুলিশ। এই ঘটনায় দু’জন এসআইসহ চারজন পুলিশ সদস্য গুরুতর আহত হয়েছে বলেও দাবি করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় সোমবার দুপুরে জামালপুর জেলার পুলিশ সুপার মোঃ দেলোয়ার হোসেন বিপিএম, পিপিএম (বার) তার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের জানান, রোববার ভোররাতে বকশীগঞ্জ উপজেলার মেরুরচর ইউনিয়নের আইড়মারী এলাকায় দশানি নদীতে নৌ ডাকাতির সময় বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ ১৪ মামলা আসামি শিপনকে গ্রেফতার করে। রোববার দিনভর জিজ্ঞাসাবাদ শেষে শিপনের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে মাদক ও অস্ত্র উদ্ধারের জন্য বকশীগঞ্জ থানার একদল পুলিশ শিপনকে নিয়ে সোমবার ভোররাতে অভিযানে বের হয়।

অভিযানের একপর্যায়ে উপজেলার কামালপুর ইউনিয়নের ডুমুরতলা এলাকায় পৌঁছুলে শিপনের সহযোগী মাদক ব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে কয়েক রাউন্ড গুলি ছুঁড়ে। এ সময় সন্ত্রাসীদের গুলিতে শিপন গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়। তাকে বকশীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বন্দুকযুদ্ধের সময় মাদক ব্যবসায়ীদের হামলায় চারজন পুলিশ মারাত্মকভাবে আহত হয়েছেন বলে পুলিশ সুপার দাবি করেছেন। আহতরা হলেন- এসআই মোঃ আব্দুল আজিজ, এসআই রাজু আহাম্মেদ, কনস্টেবল রাসেল নকরেক ও মোঃ মিজানুর রহমান। অভিযানের সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি পাইপগান, একটি মোটরসাইকেল ও ৩০০ পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়েছে।

পুলিশ সুপার মোঃ দেলোয়ার হোসেন আরো জানান, নিহত শিপনের ময়নাতদন্ত শেষে লাশ তার পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে বকশীগঞ্জ থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email