সৈয়দপুরের তিন কেন্দ্রে ভোট পুনগণনা, রানীগঞ্জের গেজেট প্রকাশ বন্ধ করতে হাইকোর্টের রুল জারি

0
161

জগন্নাথপুর: সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের মধ্যে ছয় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের গ্রেজেট প্রকাশিত হয়েছে। তবে সাতটি ইউনিয়নের মধ্যে দুটি ইউনিয়নের নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে উচ্চ আদালতে মামলা দায়ের হয়েছে। ফলে এ দুটি ইউনিয়নের নতুন পরিষদের কার্যক্রম চালু নিয়ে শংকা দেখা দিয়েছে।

জানা গেছে, গত ২৮ মে অনুষ্ঠিত উপজেলার ছয় ইউনিয়নের নির্বাচিত চেয়ারম্যানদের নামে গ্রেজেট প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশিত গেজেটে ১নং কলকলিয়া ইউনিয়নে আব্দুল হাশিম, পাটলী ইউনিয়নে সিরাজুল হক, চিলাউড়া-হলদিপুর ইউনিয়নে আরশ মিয়া, সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়নে তৈয়ব মিয়া, আশারকান্দি ইউনিয়নে আবু ঈমানী ও পাইলগাঁও ইউনিয়নে মখলিছুর রহমানের নাম রয়েছে।

পরবর্তীতে ষষ্ঠ ধাপে রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন হলে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন সহিদুল ইসলাম রানা মিয়া। তার নাম গেজেট এখনো প্রকাশিত না হলেও এই নির্বাচনকে অবৈধ আখ্যায়িত করে গ্রেজেট বন্ধ করতে হাইকোর্টে রিট করেন বর্তমান চেয়ারম্যান মজলুল হক। হাইকোর্ট এক আদেশে কেন গেজেট প্রকাশ বন্ধ হবে না তা জানতে চেয়ে নির্বাচন কমিশনের ওপর রুল জারি করেছেন বলে জানিয়েছেন রানীগঞ্জ ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মজলুল হক।  অপরদিকে সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়নের তিন টি ভোটকেন্দ্রে পুনগণনার আদেশ দিয়েছেন উচ্চ আদালতের একটি ব্যাঞ্চ।

আদেশের কপি পৌঁছতে বিলম্ব হওয়ায় গেজেট প্রকাশিত হলেও উক্ত গেজেট বাতিল হয়ে ওই ইউনিয়নের তিনটি কেন্দ্রে ভোট পুনগণনা হবে বলে নিশ্চিত করেছেন সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল হাসান। তিনি জানান, মহামান্য হাইকোর্ট  আমার আবেদনের প্রেক্ষিতে সৈয়দপুর আড়িকোনা, সুনাতনপুর ও বুধরাইল ভোটকেন্দ্রে ভোট পুনগণনার আদেশ দিয়েছেন। তিন মাসের মধ্যে এই তিনটি কেন্দ্রের ভোট পুনগণনা হবে।

Print Friendly, PDF & Email