সোনাগাজীতে মামলার বাদীকে কুপিয়ে হত্যা

0
522

ফেনীর সোনাগাজীতে মামলা দায়েরের ৯ দিনের মাথায় জামাল উদ্দিন (৫৫) নামে এক প্রবাসীকে নির্মমভাবে কুপিয়ে, পিটিয়ে এবং চেতনানাশক স্প্রে নিক্ষেপ করে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এ সময় তার বসত ঘরের দরজা জানালার ব্যাপক ভাঙচুর, ১২ ভরি স্বর্ণালঙ্কার এবং নগদ ২ লাখ টাকা লুটে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার রাত ২টার দিকে উপজেলার মতিগঞ্জ ইউনিয়নের ভাদাদিয়া গ্রামের ছয় ভাইদের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। সোনাগাজী মডেল থানার পুলিশ আজিমা আক্তার (৫০) নামে এক মহিলাকে গ্রেপ্তার করেছে। নিহতের পুত্রবধূ জাকিয়া আক্তার জানায়, আলতাফ আলীর ছেলে সৌদি প্রবাসী জামাল উদ্দিনের সাথে একই বাড়ির শাহ্‌ আলমদের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। সম্পত্তি নিয়ে দায়ের করা মামলায় সমপ্রতি আদালতের রায়ও জামাল উদ্দিনের পক্ষে হয়। আদালতের রায় পেয়ে গত ২৪শে জুলাই জামাল উদ্দিন নির্মাণ শ্রমিকদের নিয়ে বাড়ির সীমানা প্রাচীর নির্মাণ কাজ শুরু করেন। এ সময় শাহ্‌ আলমের নেতৃত্বে তার ৮-১০জন ভাড়াটে সন্ত্রাসী জামাল উদ্দিন ও তার তিনজন নির্মাণ শ্রমিককে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে।

এ ঘটনায় জামাল উদ্দিন বাদী হয়ে শাহ্‌ আলমকে প্রধান আসামি করে ৭ জনের নাম উল্লেখ করে গত ২৪শে জুলাই সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার অপরাপর আসামিরা হলেন রিপন, হৃদয়, আলাউদ্দিন, জাহিদ, আমেনা খাতুন, আজিমা খাতুন ও অজ্ঞাত নামা ৫-৬ জন। প্রসঙ্গত; ২০০৯ সালে গভীর রাতে ঘরে ঢুকে উল্লিখিত আসামিদের কয়েকজন ও তাদের ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা জামাল উদ্দিনের স্ত্রী আয়েশা আক্তারকে নির্মমভাবে হত্যা করেছিল। সে মামলাটিও আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।