২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার বিচার শেষ পর্যায়ে রয়েছে: আইনমন্ত্রী

0
344

ঢাকা: আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেছেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার বিচার শেষ পর্যায়ে রয়েছে। শিগগিরই এ রায় দেয়া হবে বলে আশা করছি। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়ের আয়োজনে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ তথ্য জানান তিনি। শনিবারের এ কর্মসূচিতে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম উপস্থিত ছিলেন। আইনমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র রয়েছে কিনা খতিয়ে দেখতে কমিশন গঠন করা যেতে পারে। ‘বঙ্গবন্ধু হত্যায় ‍জিয়াউর রহমানের মরণোত্তর বিচার হবে কি-না’- সাংবাদিকদের এ প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী বলেন, ফৌজদারি আইনের মামলায় অভিযুক্ত কোনো আসামি মারা গেলে তার বিচারের কোনো বিধান নেই। ফলে বঙ্গবন্ধু হত্যা ‍মামলায় জিয়াউর রহমানের মরণোত্তর বিচার হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। যদি তিনি দোষী হন, তা ইতিহাসের পাতায় লেখা থাকবে। তার জড়িত থাকার কথা যদি প্রমাণ হয়, তবে জনগণ তাকে ঘৃণার চোখেই দেখবে।

বঙ্গবন্ধু হত্যার নেপথ্যে জড়িতদের বিষয়ে আইনমন্ত্রী আরো বলেন, যারা যারা এর নেপথ্যে ছিলেন, ইতিহাসের কারণেই কিন্তু সেটা খুঁজে বের করা দরকার। আমরা তাদের খুঁজে বের করতে কোনো কমিশন গঠন করবার কথা চিন্তা-ভাবনা করছি। আমরা যারা সরাসরি এর সাথে জড়িত ছিলেন, যারা ষড়যন্ত্রের সাথে জড়িত ছিলেন, তাদেরকে কিন্তু আমরা বিচারের আওতায় আনতে পেরেছি। তাদেরকে সাজা দিতে পেরেছি। খুনি মুশতাক যদি বেঁচে থাকতেন, তার যদি বিচার করা যেতো, মাহবুবুল আলম চাষীর যদি বিচার করা যেতো, এখন পলাতক রশীদকে যদি বের করা যায় তাহলে এর নেপথ্যে আরো কারা আছে সেটা বের করা যাবে। যারা হত্যা মামলার সাথে জড়িত নয়, কিন্তু বাইরের ষড়যন্ত্রে সাথে জড়িত, সেক্ষেত্রে আমরা হয়তো অনেক তথ্য পেতাম। সেটা সম্ভব নয়। আমার মনে হয় এখন কমিশন করে অন্তত জিজ্ঞাসা করে ইতিহাসের জন্য এই জিনিসটা করা উচিত।

একুশে আগস্টের গ্রেনেড হামলা মামলার বিষয়ে তিনি বলেন, এই হত্যার বিচার কাজ শেষ পর্যায়ে আছে। আমার বিশ্বাস যে, আগামী কিছুদিনের মধ্যে এ মামলার রায় হবে। একুশে আগস্ট হামলা মামলার আসামি বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ফিরিয়ে আনার বিষয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, আমি এ ব্যাপারে শুধু বলবো, আমরা তাদেরকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি।

Print Friendly, PDF & Email