শেখ হাসিনাই মুক্তিযোদ্ধাদের বাড়িঘর নির্মাণ করে দিয়েছেন: গণপূর্তমন্ত্রী

0
17

নিউজ ডেস্ক: গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, যারা পেট্রলবোমা মেরে অবোধ পশুসহ শিশুদের মারে, যারা স্কুল-কলেজসহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পুড়িয়েছে তারা দেশের বন্ধু হতে পারে না। যারা দেশের স্বাধীনতারবিরোধিতা করেছিল ও স্বাধীনতার ৪৮ বছর পরও এ দেশকে মেনে নিতে পারে না, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে বিশ্বাস করে না তাদের প্রত্যাখ্যান করতে হবে।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই একমাত্র এ দেশের মুক্তিযোদ্ধাদের যাদের বাড়িঘর নেই তাদের বাড়িঘর নির্মাণ করে দেয়াসহ ভাতা প্রদান করেছেন। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করবেন। শুক্রবার উপজেলার ডাকবাংলো চত্বরে উপজেলা অবকাঠামো উন্নয়ন শীর্ষক মতবিনিময় সভায় তিনি এ সব কথা বলেন।

এ সময় উপস্থিত জনপ্রতিনিধিদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ব্যক্তি বিশেষের সন্তুষ্টির জন্য রাজনীতি করবেন না, জনগণের সার্বিক উন্নয়নের চিন্তা করে কাজ করবেন। আপনারা ও আমি একই জনগণের ভোট নিয়ে জনপ্রতিনিধি হয়েছি। এলাকার প্রত্যেকটি মানুষের খোঁজ-খবর রাখবেন। আমরা জনগণের সেবক। মনে রাখবেন মৃত্যু নিশ্চিত সময়টা অনিশ্চিত। তাই কোনো প্রকার দুর্নীতি বা বিশাল ভিত্তবৈভবের মালিক হওয়ার প্রয়োজন নেই।

মন্ত্রী বলেন, আমি অনুন্নত-অবহেলিত এ এলাকার উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে কথা বলে এখানের (পিরোজপুর-১) উন্নয়নের জন্য সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকার বরাদ্দ করিয়েছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রোজী আক্তারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আক্তারুজ্জামান খান কবির, এলজিইডির তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ও প্রকল্প পরিচালক (বিজেপি) কাজী মিজানুর রহমান, জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান, এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী সুশান্ত রঞ্জন রায়, উপজেলা চেয়ারম্যান অমূল্য রঞ্জন হালদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন খান, উপজেলার ৯টি ইউপির চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যরা বক্তব্য রাখেন।

Print Friendly, PDF & Email